কৈশোরে নিজেও যৌনতা সম্পর্কে কিছুই জানতেন না রাকুল। উল্টে অনেক ভুল ধারণা তিনি মনের মধ্যে পুষে রেখেছিলেন। এ বিষয়ে রাকুল বলেন, ‘ছোটবেলায় আমিও ভাবতাম যে চুমু খেলেই মেয়েরা গর্ভবতী হয়ে যায়। আমার মনে আছে, স্কুলে আমার এক বান্ধবী ছিল। তারও আমার মতো ভুল ধারণা ছিল। তাই সে তার প্রেমিককে যখনই চুম্বন করত, তখনই গর্ভনিরোধক খেত, যাতে অন্তঃসত্ত্বা না হয়ে পড়ে। এই পর্ব দীর্ঘ সময় ধরে চলেছিল। গর্ভনিরোধক ট্যাবলেট খেতে খেতে একদিন সে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ে। সেটা এতটাই গুরুতর যে অস্ত্রোপচার পর্যন্ত করতে হয়। তাই আমি স্কুল ও বাড়ির সবাইকে বলতে চাই যে সঠিক বয়সে যৌনশিক্ষা দিন। যৌনতা ঘিরে সঠিক জ্ঞানের প্রয়োজন। আর তাহলে আমার বান্ধবীর মতো ভুল পথে চালিত হওয়া থেকে বাঁচবে।’

রাকুল দর্শকের প্রতি এ–ও আবেদন করেছেন যে পরিবারের সবাই মিলে একসঙ্গে বসে তারা যেন ‘ছত্রীওয়ালি’ ছবিটি উপভোগ করে। তেজাস দেওস্কর পরিচালিত সিনেমাটিতে রাকুল ছাড়া অভিনয় করেছেন সুমিত বিয়াস ও সতীশ কৌশিক।

এটি ছাড়া চলতি বছর রাকুলের আরও চারটি সিনেমা মুক্তি পাবে। এর মধ্যে আছে কমল হাসানের সঙ্গে বহুল প্রতীক্ষিত সিনেমা ‘ইন্ডিয়ান টু’ও।