default-image

মার্কিন নির্বাচনে ভোট গণনা শেষ হওয়ার তখনো ঢের বাকি। অথচ ডোনাল্ড ট্রাম্প ঘোষণা দিয়ে বসলেন, তিনিই জয়ী! সঙ্গে সঙ্গে জানিয়ে দিলেন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। তবে বেঁকে বসল ফেসবুক আর টুইটার। দ্রুত পদক্ষেপে ট্রাম্পের ভুয়া দাবি বন্ধের ব্যবস্থা নিল তারা। এভাবে সরাসরি মার্কিন প্রেসিডেন্টের বিপক্ষে অবস্থান নেওয়ার সাহস এর আগে আর কখনো দেখায়নি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম দুটি।

ফেসবুক ও টুইটারের পক্ষ থেকে ঘোষণা এসেছে, ভোট গ্রহণ সম্পর্কে ভুল তথ্য ছড়ালে কিংবা মূল ঘোষণার আগেই কোনো প্রার্থী জয় দাবি করলে ব্যবস্থা নেবে তারা।

ডোনাল্ড ট্রাম্পের ফেসবুক পোস্টের নিচে ফেসবুকের সতর্কবার্তা

I will be making a statement tonight. A big WIN!

Posted by Donald J. Trump on Tuesday, November 3, 2020

গতকাল বুধবার থেকে ট্রাম্পসহ তাঁর সহযোগীরা জয় দাবি করে পোস্ট দিলে তা চিহ্নিত করে দিচ্ছে ফেসবুক। এক মুখপাত্র সরাসরি ট্রাম্পের নাম উল্লেখ করে জানিয়েছেন, কেন এমন সিদ্ধান্ত নিল প্রতিষ্ঠানটি। তিনি বলেছেন, ‘প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প যখন থেকে আগাম দাবি করা শুরু করেছেন, আমরা সঙ্গে সঙ্গে ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রাম ব্যবহারকারীদের নোটিফিকেশনের মাধ্যমে জানানো শুরু করেছি যে এখনো ভোট গণনা চলছে। আমরা দুই প্রার্থীর পোস্টের সঙ্গেই এ ধরনের তথ্য সেঁটে দিচ্ছি।’

বিজ্ঞাপন

ব্যবহারকারীদের সতর্ক করে দিয়েছে টুইটারও

গতকাল ফেসবুক ও টুইটারে একসঙ্গে ট্রাম্প লেখেন, ‘আমরা অনেক এগিয়ে আছি। তবে তারা চাচ্ছে নির্বাচন ছিনিয়ে নিতে। আমরা ওদের কখনোই তা করতে দেব না। ভোট গ্রহণ শেষ হলে আর ভোট দেওয়া যেতে পারে না।’ এরপর আরেকটি পোস্টে ট্রাম্প লেখেন, ‘আমি আজ (বুধবার) রাতে একটি ঘোষণা দেব। বিশাল ব্যবধানে জয়!’

ফেসবুকে ট্রাম্পের প্রথম পোস্টটিতে শুরুতে একটি চৌকোনা বাক্সে লিংকসহ লেখা ছিল, ‘২০২০ মার্কিন নির্বাচনের সর্বশেষ দেখুন।’ তবে পোস্ট করার আধঘণ্টা পর তাতে ফেসবুক সতর্কবাণী যুক্ত করে। তাতে লেখা ছিল, ‘প্রাথমিক ভোট গণনার সঙ্গে চূড়ান্ত ফলাফল ভিন্ন হতে পারে, কারণ, কয়েক দিন বা সপ্তাহ পর্যন্ত ভোট গণনা চলতে থাকবে।’ ততক্ষণে অবশ্য সে পোস্টে এক লাখের বেশি ব্যবহারকারী প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, যেহেতু এ ধরনের পোস্ট দ্রুত ছড়িয়ে যেতে পারে, তাই আগে থেকেই ব্যবস্থা নেওয়া জরুরি।

সূত্র: দ্য গার্ডিয়ান

মন্তব্য পড়ুন 0