বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এর একটি কারণ হলো, গৃহপালিত প্রাণীদের শ্রবণ ও ঘ্রাণশক্তি প্রবল। সাধারণ মানুষ যা টের পায় না, এরা অনায়াসে তা ধরতে পারে। এরা ক্ষীণ শব্দ শুনে বা সামান্য গন্ধ পেয়ে পরিস্থিতির পরিবর্তন সম্পর্কে সচেতন হয়ে ওঠে। তাদের কানের এমন গুণ যে দূরবর্তী ঝড়ের শব্দ থেকে তারা ঝড়ের আভাস পায়।

default-image

আবার আবহাওয়াবিদেরা বলেন, দূরে কোথাও ঝড় হলে ওই এলাকার বস্ত্তকণার গন্ধ বাতাসে ভেসে অনেক দূরে ছড়িয়ে পড়ে। এই গন্ধ কুকুর বা বিড়াল টের পায় এবং তার প্রতিফলন ঘটে তাদের আচরণে।

তা ছাড়া ঝড় শুরু হওয়ার আগেই কোনো স্থানের তাপমাত্রা ও বাতাসের আর্দ্রতায় তারতম্য ঘটে। কিন্তু অনেক ক্ষেত্রে তা এত সামান্য যে মানুষ টের পায় না, কিন্তু বাসার পোষা কুকুর টের পায়।

default-image

ফলে তার অস্বাভাবিক আচরণ থেকে আমরা বুঝতে পারি, হয়তো ঝড় আসছে। এসব ঘটনা থেকে আমরা বলে থাকি, কিছু পোষা কুকুর বা বিড়াল ঝড়ের পূর্বাভাস দিতে পারে। এর মধ্যে কোনো অলৌকিকতা নেই।

একটু থামুন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন