default-image

আইফোনকে কেন লেট লতিফ ডাকা উচিত, তার পাঁচটি কারণ দেখিয়েছিলাম। সে লেখার মূল বক্তব্য ছিল, অ্যান্ড্রয়েডচালিত স্মার্টফোনে যে সুবিধা অনেক আগে পাওয়া যায়, আইফোনে তা যুক্ত হয় দীর্ঘদিন পর। ফাইভ-জির কথা যদি বলি, অ্যাপলের আগে অন্তত ১৮টি প্রতিষ্ঠান বাজারে ফাইভ-জি সমর্থিত স্মার্টফোন ছাড়ার ঘোষণা দিয়েছে। এমন আরও উদাহরণ পাওয়া যাবে।

আইফোন যে লেট লতিফ, তাতে সন্দেহ নেই। তবে কেন লেট লতিফ, তার ব্যাখ্যা দিয়েছেন অ্যাপলের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা স্বয়ং। হলভর্তি দর্শকের সামনে টিম কুক ঘোষণা দিয়েছেন, কেবল প্রথম হওয়া অ্যাপলের লক্ষ্য নয়।

কারণ ব্যাখ্যা করতে গিয়ে বলেছেন, ‘অনেক মানুষ উদ্ভাবনকে পরিবর্তনের সঙ্গে গুলিয়ে ফেলেন। অনেকে মনে করেন, উদ্ভাবন মানেই পরিবর্তন। তবে উদ্ভাবনের অর্থ কোনো কিছুকে উন্নত করা, শুধু পরিবর্তন নয়।’

সঙ্গে যোগ করেছেন, ‘প্রথম হওয়া কখনোই আমাদের লক্ষ্য ছিল না। আমাদের লক্ষ্য সর্বশ্রেষ্ঠ হওয়া। প্রলোভনকে পাশ কাটিয়ে এই ধ্রুবতারাই আমাদের পথ দেখিয়েছে। আমরা সেরা পণ্যই তৈরি করে যেতে চাই।’

বিজ্ঞাপন

টিম কুকের বক্তব্য থেকে পরিষ্কার, নতুন কোনো প্রযুক্তি এলেই অ্যাপল ঝাঁপিয়ে পড়ে না। বরং অপেক্ষা করে, পর্যবেক্ষণ করে, বোঝার চেষ্টা করে কবে সে প্রযুক্তি মানুষের কাজে আসবে, কিংবা আদৌ আসবে কি না। নতুন সে প্রযুক্তিকে সম্ভাবনাময় মনে করলে তবেই নিজেদের সেরাটা দিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়ে অ্যাপল। পণ্যের সঙ্গে নতুন প্রযুক্তি তুলে দেয় মানুষের হাতে।

এ তো গেল একটা দিক। এবার চলুন মানুষ কেন হাতে আইফোন তুলে নেন, তাঁর সবচেয়ে গ্রহণযোগ্য পাঁচটি কারণ জেনে নেওয়া যাক।

default-image

১. অ্যান্ড্রয়েডের চেয়ে এগিয়ে রাখেন

আইফোন সহজে ব্যবহার করা যায় বলে মানেন অনেকে। তা ছাড়া প্রয়োজনীয় সব ধরনের অ্যাপ পাওয়া যায়। আবার তথ্যের নিরাপত্তার বেলায় অ্যান্ড্রয়েডের চেয়ে আইফোনের অপারেটিং সিস্টেম আইওএসকে এগিয়ে রাখতে চান তাঁরা। মুঠোফোনে ভালো ছবির জন্যও আইফোন অনেকের প্রথম পছন্দ।

default-image

২. ঘরে আগে থেকেই অ্যাপলের অন্য পণ্য থাকলে

অ্যাপলের অন্যান্য পণ্যের সঙ্গে চমৎকার মানিয়ে নেয় আইফোন। যেমন ম্যাকবুক থেকে সহজে আইফোনে ফাইল স্থানান্তর করা যায়। সুতরাং অ্যাপলের কোনো পণ্য ঘরে থাকলে স্মার্টফোন কেনার সময় প্রথম পছন্দ হতে পারে আইফোন।

default-image

৩. যাঁরা আগেও আইফোন ব্যবহার করেছেন

আপনি যদি আগে থেকেই আইফোন ব্যবহারকারী হয়ে থাকেন তো নতুন স্মার্টফোনের প্রয়োজন হলে আবারও আইফোন হাতে তুলে নেওয়ার সম্ভাবনা বেশি। যাঁরা একবার আইফোনে মজেছেন, অন্য কিছু তাঁদের মুখে রোচে না।

default-image

৪. মর্যাদার প্রতীক মনে করেন অনেকে

অ্যাপল ব্র্যান্ডের প্রতি আকৃষ্ট হয়ে আইফোন কেনেন অনেকে। মর্যাদার প্রতীক মনে করেন কেউ কেউ। তা ছাড়া শত শত চীনা ব্র্যান্ডের ভিড়ে আইফোন এবং নির্মাতা প্রতিষ্ঠান অ্যাপলকে একনামে চেনে সবাই। সেটাও কারণ হতে পারে।

default-image

৫. ব্যবহৃত আইফোন বিক্রি করা সহজ

বছর বছর নতুন স্মার্টফোন কিনতে চাইলে আইফোন কেনা ভালো। কারণ, ব্যবহৃত আইফোন তুলনামূলক সহজে বিক্রি করা যায়, দামও পাওয়া যায় ভালো। অন্যান্য প্রতিষ্ঠান এত ঘন ঘন স্মার্টফোন বাজারে ছাড়ে যে নির্দিষ্ট কোনো মডেল আলাদা করে পরিচিতি পায় না।

সুতরাং আইন নয়, চাইলে আইফোন নিজের হাতে তুলে নিন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0