কলমিশাক ও তুলসীপাতায় মুরগি

default-image

উপকরণ: কলমিশাককুচি ১ কাপ, মুরগি (হাড় ছাড়া জুলিয়ান কাট) ৫০০ গ্রাম, তুলসীপাতা ১ কাপ, পেঁয়াজ মাঝারি ১টি (কাটা), কাঁচা মরিচের মিশ্রণ (দেশি, থাই মরিচ ও জালাপেনিও) আধা কাপ, ক্যাপসিকাম (কাটা) ১টি মাঝারি, রসুন (মিহি করে কাটা) ৭টি কোয়া, আদা (চিকন করে কাটা) ১ ইঞ্চি, সয়া সস ৩ টেবিল চামচ, ভিনেগার আধা টেবিল চামচ, অয়েস্টার সস ১ চা–চামচ, ফিশ সস আধা চা–চামচ, ব্রাউন সুগার বা মধু ১ চা–চামচ, লবণ স্বাদমতো, গোলমরিচের গুঁড়া ১ চা–চামচ, জলপাইয়ের তেল ২ টেবিল চামচ, কর্নফ্লাওয়ার ১ টেবিল চামচ (পানিতে গোলানো)।

প্রণালি: একটি বড় পাত্রে তেল গরম করে রসুন, আদাকুচি পেঁয়াজ দিন। একটু নেড়ে এতে মাংস দিন। ১০ মিনিটের জন্য রান্না করুন। এবার মরিচের মিশ্রণ, কলমিশাক ও অর্ধেক তুলসীপাতা দিয়ে ১৫ সেকেন্ডের মতো নেড়ে নিন। এবার সব ধরনের সস দিয়ে নেড়ে লবণ দিন। সব রকম মরিচের মিশ্রণ এবং পরিমাণমতো গোলমরিচের গুঁড়া দিয়ে ১০ সেকেন্ডের জন্য নাড়ুন। পানিতে গোলানো কর্নফ্লাওয়ার মাংসে ঢেলে ২ মিনিট ধরে রান্না করুন। এবার মধু দিয়ে চুলা বন্ধ করে কিছুক্ষণ নাড়তে থাকুন। বাকি তুলসীপাতা দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিয়ে পরিবেশন করুন।

মুচমুচে পাটশাক ভাজা

default-image

উপকরণ: পাটশাক ২৫০ গ্রাম, বেসন ১ কাপ, চালের গুঁড়া ১ টেবিল চামচ, মরিচগুঁড়া ১ চা–চামচ, আদাবাটা সিকি চা–চামচ এবং লবণ ও তেল পরিমাণমতো।

প্রণালি: পাটশাক ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন। তেল ছাড়া বাকি সব উপকরণ পরিমাণমতো পানি দিয়ে ভালোভাবে মিশিয়ে একটা ঘন গোলা বানিয়ে নিতে হবে। এর মধ্যে পাটশাক ডুবিয়ে গড়িয়ে নিয়ে গরম ডুবো তেলে বাদামি করে ভেজে নিন।

লাউপাতায় ইলিশ পাতুরি

default-image

উপকরণ: ইলিশ মাছ ৩ টুকরা, আদাবাটা সিকি চা–চামচ, জিরাবাটা আধা চা–চামচ, পেঁয়াজবাটা ১ চা-চামচ, পেঁয়াজকুচি ১ টেবিল চামচ, আস্ত কাঁচা মরিচ ৪-৫টি, হলুদগুঁড়া আধা চামচ, মরিচগুঁড়া আধা চামচ, শর্ষেবাটা ১ চা–চামচ, শর্ষের তেল ১ টেবিল চামচ ও লবণ স্বাদমতো।

প্রণালি: লাউশাক ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন। এবার পেঁয়াজকুচি, পেঁয়াজবাটা, কাঁচা মরিচ, মরিচগুঁড়া, লবণ ও হলুদ–আদা–জিরাবাটার সঙ্গে তেল মিশিয়ে মাছে মেখে নিন। দুটি লাউশাকের পাতার মাঝখানে মাছ রেখে মুড়িয়ে নিন। এবার ডাবল বয়লারে এই মাছ রেখে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে দিন। অল্প জ্বালে ১০ থেকে ১২ মিনিট রান্না করতে হবে।

স্পিনাচ চিলি গার্লিক প্রন

default-image

উপকরণ: চিংড়ি ১ কেজি (খোসা ছাড়ানো), রসুন ৪ টেবিল চামচ (মিহি কুচি), মাখন ৩ টেবিল চামচ, পালংশাক ১ কাপ, লবণ স্বাদমতো, গোলমরিচগুঁড়া ১ টেবিল চামচ, চিলি ফ্লেক্স ১ টেবিল চামচ, পেঁয়াজ কলি ১ কাপ (মিহি কুচি), পেঁয়াজ ১ কাপ (কাটা), ক্যাপসিকাম আধা কাপ (টুকরো করে কাটা), তেল পরিমাণমতো, চালের গুঁড়া আধা কাপ, আদাবাটা সিকি চা–চামচ, ১ টেবিল চামচ লেবুর রস ও কর্ন ফ্লাওয়ার ১ টেবিল চামচ।

প্রণালি: চিংড়ি ভালো করে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন। তারপর চালের গুঁড়া, অর্ধেক রসুনকুচি, লবণ, লেবুর রস, আদাবাটা, চিলি ফ্লেক্স ও গোলমরিচের গুঁড়া দিয়ে আলতো করে মেখে নিন। এবার তেল গরম হলে চিংড়ি সোনালি করে ভেজে তুলে রাখুন।কড়াইয়ে মাখন দিন। মাখনের মধ্যে রসুনকুচি দিয়ে নেড়েচেড়ে নিন। রসুনের গন্ধ বের হলে ভাজা চিংড়ি দিয়ে দিন। স্বাদ অনুযায়ী চিলি ফ্লেক্স ও গোলমরিচের গুঁড়া আরও একবার দিন। ভালো করে ভাজুন। পেঁয়াজ কলিকুচি, পালংশাককুচি, ক্যাপসিকামকুচি দিয়ে গরম–গরম পরিবেশন করুন।

জীবনযাপন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন