মিলনমেলা উপলক্ষে ক্যাম্পাসের বিভিন্ন ভবনে ঝোলানো হয় ব্রাজিলের পতাকা। চোখে পড়ার মতো স্থানগুলোতে খেলোয়াড়দের ফেস্টুনও লাগিয়ে দেন সমর্থকেরা। প্রিয় দলের খেলোয়াড়দের ছবির পাশে দাঁড়িয়ে বন্ধুদের সঙ্গে ছবি তোলায় মেতে ওঠেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

ক্লাস-পরীক্ষা শেষে দুপুরে ব্রাজিলের সমর্থকেরা জার্সি পরে আনন্দ শোভাযাত্রা করেন। শোভাযাত্রাটি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান সড়কগুলো প্রদক্ষিণ করে। পরে সবাই মিলে কেক কেটে দিনটি উদ্‌যাপন করেন। ছিল মধ্যাহ্ন ভোজেরও আয়োজন।

অনুষ্ঠানের সমন্বয়ক নবাব হোসেন বলেন, ‘জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে ব্রাজিল সাপোর্টারদের নিজেদের মধ্যে পরিচিতি ও সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক তৈরির উদ্দেশ্যেই এ আয়োজন। আমরা এভাবেই এক হয়ে ব্রাজিলের খেলাগুলো সবাই মিলে দেখব। আর ব্রাজিল দলকে সমর্থন করব।’

ব্রাজিল-সমর্থক তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী মো. সবুজ বলেন, চার বছর পর ফুটবল বিশ্বকাপ আসে। আর উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে পুরো বিশ্বে। ফুটবলের এই উন্মাদনা থেকেই ব্রাজিল-সমর্থকদের মিলনমেলা।

জানা গেছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের আর্জেন্টিনা-সমর্থকেরাও মিলনমেলাসহ নানা আয়োজন করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। বিশ্বকাপ শুরুর আগেই ক্যাম্পাসে হয়তো তাঁদেরও কোনো না কোনো কার্যক্রম চোখে পড়বে।

প্রিয় শিক্ষার্থীরা, বিশ্বকাপ উপলক্ষে আপনার ক্যাম্পাসে কী চলছে? খেলা দেখা নিয়ে আপনাদের কী আয়োজন? ছবিসহ লিখে পাঠাতে পারেন এই ঠিকানায়: [email protected]। লেখার সঙ্গে অবশ্যই আপনার পুরো নাম, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের নাম এবং ফোন নম্বর উল্লেখ করতে হবে।