তেল মালিশ

চুলের যত্নে তেল মালিশের গুরুত্ব অনেক। তাই শ্যাম্পু করার অন্তত ৩০ মিনিট আগে তেল গরম করে ভালোভাবে মালিশ করতে হবে। তাহলে ভেতর থেকে চুল মজবুত হবে, রুক্ষতা কমে চুল মসৃণ ও ঝলমলে দেখাবে।

প্রাকৃতিক চুলের প্যাক

default-image

মেথির পাউডার, টকদই, ডিম এবং অ্যালোভেরা পরিমাণমতো মিশিয়ে মাথার ত্বকে ভালোভাবে লাগাতে হবে। ৩০ মিনিট পর শ্যাম্পু করে ফেলুন। তবে যাঁদের খুশকি আছে, তাঁরা অবশ্যই এই মিশ্রণের সঙ্গে ২ চা-চামচ লেবুর রস মিশিয়ে নেবেন। সপ্তাহে দুই দিন এই মিশ্রণ ব্যবহার করা যেতে পারে।

৩ টেবিল চামচ মধুর সঙ্গে ৫ টেবিল চামচ জলপাই তেল মিশিয়ে মাথায় ভালোভাবে লাগিয়ে নিন। এভাবে ৩০ মিনিট অপেক্ষা করে চুল স্বাভাবিক উপায়ে ধুয়ে নিন। যাদের চুল শুষ্ক, উপকার পাবেন।

আরও যা করবেন

ইফতার ও সাহ্‌রিতে পানি, দেশি ফল ও শাকসবজি খান। এর সঙ্গে স্বাস্থ্যকর খাবার, যেমন খেজুর, চিনাবাদাম, কাজুবাদাম, স্ট্রবেরি খাবেন। খেজুরে প্রচুর অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট, ভিটামিন-এ, আয়রন, পটাশিয়াম, ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম আছে। বাদামে স্বাস্থ্যকর ফাইবার ও ফ্যাটি অ্যাসিড আছে। স্ট্রবেরি ও জামে আছে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট।

তৈলাক্ত, মসলাযুক্ত, ভাজা ও শুকনা খাবার বর্জন করুন। অতিরিক্ত শ্যাম্পু ব্যবহার থেকে বিরত থাকুন। অকারণে রোদে বের হওয়া উচিত নয়। অতিরিক্ত সোডা, চা ও কফি খাবেন না।

নিয়মিত চুল আঁচড়াতে হবে। চুল আঁচড়ালে ত্বকের রক্তসঞ্চালন বৃদ্ধি পায়, ফলে চুল পড়াও কমে যাবে।

রূপচর্চা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন