বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বিশ্বরঙের ঈদুল আজহার আয়োজন

default-image

ঈদ মানেই হাসি–আনন্দ, উৎসবের রঙে নিজেকে রাঙানো। পবিত্র ঈদুল আজহা ঘিরে বেশ আগে থেকেই শুরু হয় উদযাপনের সব পরিকল্পনা। উৎসব–পার্বণ উদ্‌যাপনে বিশ্বরঙ সব সময়ই অগ্রপথিক। তাই উৎসব–পার্বণে নতুন ট্রেন্ড নিয়ে কাজ করা বিশ্বরঙের স্বভাবসিদ্ধতা সুদীর্ঘ ২৬ বছর ধরে। এবারও তার ব্যতিক্রম হয়নি। ঈদুল আজহাকে ঘিরে এই ফ্যাশন হাউস ফ্যাশন সচেতন ব্যক্তিদের জন্য নিয়ে এসেছে নতুন সব ট্রেন্ডি ডিজাইন।

default-image

ঈদুল আজহার আয়োজনের পোশাকগুলোয় ব্যবহার করা হয়েছে ধুপিয়ান সিল্ক, জয় সিল্ক, তসর সিল্ক, সফট সিল্ক, কাতান, ভেলভেট ছাড়া বিভিন্ন রকম অর্নামেন্টেড কাপড়। রঙের ব্যবহারে অফহোয়াইট, সাদা, লাল, মেরুন, রয়েল ব্লু, গ্রিন, গোল্ডেনসহ সব রঙেই পরিমিতিবোধ লক্ষ করা যায়। কাজের মাধ্যম হিসেবে এসেছে এমব্রয়ডারি, জারদৌসি, কারচুপি, কাটওয়ার্ক, স্ক্রিন প্রিন্টসহ মিশ্র মাধ্যমের নিজস্ব বিভিন্ন কৌশল।
অতিমারির এই সময়ে যে কেউ ঘরে বসেই শোরুমের সব সামগ্রী কেনাকাটা করতে পারবেন অনলাইনে, ফেইজবুক পেজ অথবা ফোনে ফোনে।

যথাশিল্পের বর্ষামঙ্গল

default-image

নোটবুক ও নকশি টি-শার্ট তৈরি করে যথাশিল্প বিশেষ দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে। নতুনত্বের ধারাবাহিকতায় এবার বর্ষাকে আমন্ত্রণ জানিয়ে যথাশিল্প নিয়ে এসেছে নতুন ডিজাইনের বর্ষার টি–শার্ট ও নোটবুক।

গ্রামবাংলার বাদল দিনের অমূল্য স্মৃতি আর অনুভূতি ধরে রাখতে যথাশিল্পের বর্ষামঙ্গল টি–শার্ট আর নোটবুকে ফুটে উঠেছে আবহমান বাংলার অসাধারণ কিছু দৃশ্য, যা আপনাকে স্মৃতিকাতর করে তুলতে পারে। ব্যাঙের ছাতা ও কোলাব্যাঙ, সোনার তরীর মাঝির বৃষ্টিতে ভিজে নৌকায় বাড়ি ফেরা, বৃষ্টির জলে কাগজের নৌকা ভাসানো ইত্যাদি নানা চিত্ররূপ ফুটিয়ে তোলা হয়েছে নোটবুকে সূচিকর্মের মাধ্যমে ও সুতি টি–শার্টে স্ক্রিন প্রিন্টের মাধ্যমে।

বর্ষার টি–শার্ট ও নকশি নোটবুক সরাসরি আদাবরে অবস্থিত যথাশিল্প সেন্টার (বাসা ৭১৬, সড়ক ১০, বাইতুল আমান হাউজিং সোসাইটি) ছাড়া ওয়েবসাইট ও ফেসবুক পেজ থেকে সরাসরি কেনা যাবে। অর্ডার করতে পারবেন।

ছবি: অঞ্জন’স, বিশ্বরঙ ও যথাশিল্প

ফ্যাশন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন