default-image
বিজ্ঞাপন

নেইল আর্ট বা নখের সজ্জা এখন ফ্যাশনের অনুষঙ্গ হিসেবে বেশ ট্রেন্ডি ও জনপ্রিয়। করোনা অতিমারির পুরো সময় নেইল আর্টের প্রবণতা বেগবান হয়েছে ফ্যাশনের দুনিয়ায়। এর বড় কারণ, প্রসাধনের প্রধানতম জায়গা মুখমণ্ডলের বড় অংশ এখন ঢাকা পড়ছে মাস্কে। ফলে গাল কিংবা ঠোঁট সাজানোর তেমন কোনো সুযোগ নেই। আর যেহেতু বাসাবাড়িতেই থাকতে হচ্ছে দীর্ঘ সময়, তাই মেকআপের ধারণাতেও এসেছে পরিবর্তন। এ সবকিছুর কারণে এখন চোখের সাজের সঙ্গে সঙ্গে নেইল আর্ট বা নখচর্চার রমরমা চলছে।

default-image

কত বিচিত্র আর অভিনব উপায়ে নখ সাজানো যায়, এখন বিশ্বজুড়ে চলছে তারই প্রতিযোগিতা। এই ট্রেন্ড থেকে নিশ্চয়ই আপনি বাদ পড়তে চান না।

নানা রকম নখের সাজ

নতুনত্ব আনতে নখসজ্জায় গুরুত্বপূর্ণ হলো রং। গাঢ়, নাকি হালকা—কোন রঙে সাজাবেন আপনার নখ, তার আছে বিভিন্ন পথ। রূপ বিশেষজ্ঞ ফারজানা মুন্নী বলেন, ‘বর্তমানে নখের ক্ষেত্রে গাঢ় রংগুলো চলছে। একদম একরঙা না করে এগুলোর ওপর নানা ধরনের প্যাটার্ন ও নকশা ফুটিয়ে তোলা হচ্ছে। এ সময়ের জনপ্রিয় তিনটি ডিজাইন হচ্ছে রংধনু, অর্ধেক চাঁদ ও মারবেল আর্ট। একঘেয়েমি কাটাতে চার নখে এক রং ও একটি নখে আলাদা রং করা হচ্ছে। পাশাপাশি এক নখেই ব্যবহার করা হচ্ছে দুটি রং। এগুলো আরও আকর্ষণীয় করে তুলতে সাজানো হচ্ছে গ্লিটার, বিভিন্ন রঙের পাথর ও ছোট ছোট মুক্তা দিয়ে।’

default-image

ফ্যাশনের চর্চায় পুরোনো জিনিসের প্রত্যাবর্তন নতুন কোনো ঘটনা নয়। এ জন্যই এখন আশির দশকের রীতি অনুসরণ করতে দেখা যাচ্ছে। আশির দশকে প্রচলিত সাদাকালো জ্যামিতিক নকশা, গ্লিটার, সিকুইন, একরঙা সাদার প্রাধান্য চলছে নখের সজ্জায়। এ ছাড়া চুলের রং ও মেকআপের সঙ্গে মিল রেখে নেইল আর্ট করার প্রবণতাও রয়েছে। ফ্রেঞ্চ টিপ, বোল্ড মেটালিক, রেডিয়েন্ট ওপাল, লেটারিং, ডটেড ডিজিটস, স্পারকাল, ইলেকট্রিক প্রিন্ট, গ্রাফিক লাইনস, মাল্টিকালার স্ট্রাইপসহ বিভিন্ন নকশার ব্যবহার হচ্ছে নেইল আর্টে।

বিজ্ঞাপন

নখের যত্ন

নখ সাজালেই হবে না। নখের সঠিক যত্নও নিতে হবে প্রতিদিন। কারণ, নেইলপালিশ ও রিমুভার ব্যবহার করার ফলে নখের আর্দ্রতা চলে যায়। এ ছাড়া নেইলপলিশের রাসায়নিক দ্রব্যও নখের ক্ষতি করতে পারে। এ জন্য নখের যত্নে কিছু সাধারণ জিনিস সব সময় মনে রাখা উচিত।

নখের যত্নে যা করবেন

default-image
  • সব সময় ভালো মানের নেইলপালিশ ব্যবহার করা উচিত।

  • দুই দিনের বেশি নেইলপালিশ নখে রাখা ঠিক নয়। তাই দু-তিন দিনের মধ্যেই ভালো কোনো রিমুভার দিয়ে নেইলপালিশ তুলে ফেলতে হবে।

  • রিমুভার নখের আর্দ্রতা কেড়ে নেয়। তাই ময়েশ্চারাইজার–সমৃদ্ধ রিমুভার ব্যবহার করতে হবে।

  • রিমুভার ব্যবহারের পর কুসুম গরম পানিতে কিছুক্ষণ হাত ভিজিয়ে রেখে ভালো কোনো লোশন লাগাতে হবে।

  • নখ সব সময় পরিষ্কার রাখতে হবে। পারলারে গিয়ে নিয়মিত মেনিকিউর করালে ভালো হয়। এ ছাড়া বাসায় ঘরোয়া পদ্ধতিতেও মেনিকিউর করতে পারেন।

  • প্রচুর পরিমাণে পানি পান করতে হবে।

কেমন হবে নখের আকৃতি

আঙুলে লম্বা সুচালো নখ ধ্রুপদি বিষয়। কিন্তু বর্তমানে লম্বা সুচালো নখের চল ধীরে ধীরে কমে যাচ্ছে। ফারজানা মুন্নী বলেন, ‘এখন ছোট নখের চল বাড়ছে। সে ক্ষেত্রে ডিম্বাকৃতি, চারকোনা ও স্কোওভাল আকৃতিতে ছোট করে কাটা নখের চল থাকবে।’ এখন চলছে নতুন ‘স্কোওভাল’ আকৃতি। নখের এই আকৃতি দেখতে প্রায় চতুষ্কোণের মতো কিন্তু প্রান্তগুলো থাকবে বৃত্তাকার। এই আকৃতি ছোট নখের জন্য বেশ সুবিধাজনক।
নখ সাজাবেন যা দিয়ে

default-image

ট্রেন্ডি ফ্যাশন অনুযায়ী বিভিন্ন নকশা ও রং দিয়ে নখকে সাজিয়ে নিতে পারেন। পারলারে গিয়ে এমনকি নিজে নিজেই সেরে নিতে পারেন নখ আঁকা। উজ্জ্বল রংগুলো বেছে নিতে পারেন নখসজ্জার জন্য।

নখের সজ্জা কেমন হবে, সেটা ঠিক করবেন আপনি নিজেই। হাতের কাছে এখন আছে ইন্টারনেট। আছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম আর ইউটিউব। এগুলোতে প্রচুর টিউটরিয়াল খুঁজে পাবেন আপনি। পাবেন প্রচুর ট্রেন্ডি সাজেশন। সেগুলো থেকে পছন্দ করে বেছে নিতে পারেন আপনার নিজস্ব নকশা। অথবা সব নকশা দেখে নিজেও তৈরি করতে পারেন মনের মতো নকশা। তারপর সাজিয়ে নিতে পারেন আপনার নখ।

নখ সাজাতে যা প্রয়োজন

default-image

কিছু যন্ত্রপাতি আপনাকে ব্যবহার করতে হবে নখ সাজাতে। সেগুলো আপনার হাতের কাছেই পেয়ে যাবেন। পলকা ডট, ঢেউ, স্ট্রাইপ ইত্যাদি নকশা করতে চাইলে ব্যবহার করতে পারেন চিকন তুলি, আইলাইনারের ব্রাশ, আলপিন, ববি পিন। এ ছাড়া বাজারে পাওয়া যায় নেইল আর্ট কিটস। এ কিট কিনে সহজেই নখ সাজাতে পারেন। এসব নেইল আর্ট কিটসে থাকে নানা ধরনের ফ্ল্যাট ব্রাশ, প্যাটার্ন ব্রাশ, ড্রইং ব্রাশ, লাইনার, ডটিং পেন, স্ট্রাইকার ইত্যাদি।

এবার ভাবতে বসুন, কেমন হবে আপনার নখের সজ্জা। আপনার চেহারা, পোশাকের সঙ্গে কোন নকশার জুটি ভালো হবে, সেটাও ভাবতে হবে কিন্তু। আমাদের পরামর্শ হলো, সব সময় ট্রেন্ড অনুসরণ না করে বরং নিজের সৃষ্টিশীলতাকেও একবার ঝালিয়ে নিন আপনার নখের সৌন্দর্য বাড়াতে।

বিজ্ঞাপন
ফ্যাশন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন