default-image
বিজ্ঞাপন

বিশ্বজুড়ে ফ্যাশন ব্র্যান্ডগুলো আত্মপ্রকাশ করে মানুষের প্রচলিত ফ্যাশন ধারায় পরিবর্তন আনতে বা উন্নতি ঘটাতে। কিন্তু কোনো দেশ বা এলাকার সামাজিক উন্নয়নের লক্ষ্যে কাজ করে এমন ফ্যাশন ব্র্যান্ড হয়তো হাতে গোনা। যার মধ্যে রয়েছে গ্রামীণ ইউনিক্লো। মূলত বাংলাদেশের সামাজিক উন্নয়নে ভূমিকা রাখার উদ্দেশ্যে এ ব্র্যান্ড যাত্রা শুরু করেছে ১০ বছর আগে।

default-image

গ্রামীণ ইউনিক্লোর প্রতিটি কালেকশনের মূলে থাকে আরামদায়ক পোশাক তৈরি। এবারের ঈদ আয়োজনেও এর ব্যতিক্রম হয়নি। বরং ব্র্যান্ডটির রয়েছে বিশেষ পোশাক সংগ্রহ। এ বিষয়ে গ্রামীণ ইউনিক্লোর মার্কেটিং ম্যানেজার মো. শরিফুল ইসলাম বলেন, ‘আমরা বিশ্বাস করি, ঈদ মানেই উৎসব। আর উৎসব মানেই আনন্দ। ঈদের এ আনন্দে মাত্রা যোগ করে তোলে নতুন পোশাক। কিন্তু সেই পোশাকও হওয়া চাই মানানসই, স্টাইলিশ ও আরামদায়ক। কারণ, ফ্যাশনপ্রেমীরা নিজেদের স্টাইল স্টেটমেন্ট তৈরির ক্ষেত্রে আবহাওয়া এবং উৎসবের ধরনকে প্রাধান্য দেন সবার আগে। তাই আমরা সময়োপযোগী স্টাইলিশ এবং আরামদায়ক সব পোশাকে সাজিয়েছি আমাদের এবারের ঈদ কালেকশনে।’

গ্রামীণ ইউনিক্লো প্রতিদিনের ফ্যাশনকে প্রাধান্য দিয়ে কাজ করে আসছে শুরু থেকেই। এবারের ফেস্টিভ কালেকশনেও যার প্রভাব বিদ্যমান। মো. শরিফুল ইসলাম বিষয়টিকে উপস্থাপন করতে গিয়ে জানান, জাপানের এ ব্র্যান্ড ইতিমধ্যে দেশের মানুষের কাছে ক্যাজুয়াল পোশাকের জন্য জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। কেননা কেবল উৎসবের সময় একজন মানুষ নিজেকে সুন্দরভাবে উপস্থাপন করবে তা কিন্তু নয়, পোশাক মানুষের নিত্যসঙ্গী। তাই আমরা মানুষের প্রতিদিনের ফ্যাশনের চাহিদাকেই বেশি প্রাধান্য দিই এবং উৎসব কালেকশনেও এর প্রভাব দেখা যায়। অর্থাৎ উৎসব বা বিশেষ দিন ছাড়াও যাতে আমাদের পোশাকটি অন্য সময়ে পরিধানযোগ্য হয়, সে বিষয়ও আমরা খেয়াল রাখি।

default-image

তিনি বলেন, আর করোনা আমাদের চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে সাসটেইনেবিলিটি কতটা জরুরি। তাই আমরা এ বছর ঈদ কালেকশন তৈরিতে প্রয়োজনের বিষয়টিকে প্রাধান্য দিয়েছি। মহামারির এ ক্রান্তিকালে ক্রেতাদের অর্থনৈতিক অবস্থার কথা চিন্তা করে গ্রামীণ ইউনিক্লো প্রতিটি পোশাকের মূল্য নির্ধারণ করেছে। এ ক্ষেত্রে অবশ্যই প্রাধান্য পেয়েছে সাশ্রয়ী চিন্তাধারা। আমরা চাই আমাদের ক্রেতারা যেন উৎসবের জন্য প্রয়োজনীয় এবং অবশ্যই পছন্দের পোশাকটি কিনতে পারেন।’

বিজ্ঞাপন

জাপানের এ ব্র্যান্ড ঈদে ছেলেদের জন্য তৈরি করেছে বিভিন্ন রং এবং ডিজাইনের পাঞ্জাবি, প্রিমিয়াম লিনেন শার্ট, প্রিন্টেড শার্ট, বিজনেস শার্ট, পোলো শার্ট ও টি-শার্ট। উন্নত ও বিশ্বমানের নানা ধরনের বিশেষ ফেব্রিকে তৈরি হয়েছে এসব পোশাক, যা গরমের এ সময়ে খুবই আরামদায়ক। ছেলেদের বটম হিসেবে রয়েছে বিশেষভাবে তৈরি কাটইতেকি প্যান্টস্, জিনস্, চিনোসসহ আরও বিভিন্ন পণ্য।

default-image

মেয়েদের জন্য গ্রামীণ ইউনিক্লোর ঈদ আয়োজনে থাকছে বিভিন্ন ডিজাইনের হালকা ও ভারী কাজের সলিড এবং প্রিন্টেড কামিজ, টপস, ভিন্ন স্টাইলের প্যান্টস ও পালাজ্জো, লেগিংসসহ আরও বিভিন্ন পণ্য।

default-image

ঢাকা ও ঢাকার বাইরে মোট ১৬টি আউটলেটে গ্রামীণ ইউনিক্লোর ঈদ সংগ্রহ পাওয়া যাচ্ছে। এ ছাড়া ঘরে বসে কেনা যাবে অনায়াসে তাদের অনলাইনে ওয়েবসাইট (www.grameenuniqlo.com/) ও ফেসবুক পেজ (www.facebook.com/grameenuniqlo/) ও ইনস্টাগ্রামের (www.instagram.com/grameenuniqlo/

ফ্যাশন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন