ফারনাজ প্রথম দিন পরেছিলেন বিখ্যাত ফ্রেঞ্চ ফ্যাশন হাউস বালমেঁ ব্রাউন লেদার ড্রেস। দ্বিতীয় দিনে পরেন কালো জাম্পসুট। এটি ছিল ইতালিয়ান ব্র্যান্ড মোশিনোর। তবে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করতে গিয়ে বাংলাদেশকে ভুলে যাননি। তৃতীয় দিনে তিনি পরেন ফ্যাশন ডিজাইনার নাবিলার ডিজাইন করা জামদানি কোট। কাপড়টি নিয়ে রীতিমতো আলোচনা হয়েছে সেখানে। এই জামদানি কোট দেখে ওখানকার একাধিক ডিজাইনার বাংলাদেশে এসে কাপড়টি নিয়ে কাজ করার আগ্রহ দেখিয়েছেন।

মিডল ইস্ট ফ্যাশন উইকের প্রধান প্রতিপাদ্য হচ্ছে টেকসই ফ্যাশন। সম্ভাবনাময় বাজারের কারণে মধ্যপ্রাচ্য অঞ্চলে এখন বিশ্বের নামকরা সব ব্র্যান্ড ও ডিজাইনারেরা কাজ করছেন। অন্যদিকে এই অঞ্চলের ফ্যাশন ডিজাইনাররাও উঠে আসছেন এবং আন্তর্জাতিক অঙ্গনে সুনাম অর্জন করছেন। ভ্যালেরিতা আসাদ, সোফি লাম-ভিরি, বিলিয়নেস প্রমুখ ডিজাইনাররা দুবাইকেন্দ্রিক কাজ করছেন, আর তা আলাদা করে সমাদর কুড়াচ্ছে ফ্যাশন বিশ্বে। এই ডিজাইনাররাও এখানে অংশ নেন।

সেপ্টেম্বরে অনুষ্ঠিত প্যারিস ফ্যাশন উইকেও বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেন ফারনাজ আলম। সেখানেও ফ্যাশন ইনফ্লুয়েন্সার হিসেবেই আমন্ত্রিত হয়েছিলেন তিনি।