‘হাওয়া’ সিনেমা নিয়ে নোটবুক ও ব্যাজ তৈরি করে সেভেন ডেইজ নোটস নামের একটি প্রতিষ্ঠান। রাজধানীর বিভিন্ন সিনেমা হল ঘুরে দেখা গেছে, দর্শকের বুকে শোভা পাচ্ছে ‘হাওয়া’ সিনেমার ব্যাজ। অনেকের হাতে দেখা গেছে ‘হাওয়া’ সিনেমার নোটবুক। বসুন্ধরা সিটি সিনেপ্লেক্সে বুকে ‘হাওয়া’র ব্যাজ পড়ে সিনেমা দেখতে এসেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টেলিভিশন, ফিল্ম অ্যান্ড ফটোগ্রাফি বিভাগের শিক্ষার্থী সাকিব হাসান। বললেন, ‘অনেক দিন পর বাংলা সিনেমা দেখতে আসলাম। সুপারহিট সিনেমার স্মৃতি ধরে রাখতে “হাওয়া”র ব্যাজটি বুকে ধারণ করেছি। আর বন্ধুকে উপহার দিয়েছি “হাওয়া”র নোটবুক।’

default-image

এদিকে টিম সেভেন ডেইজ নোটসের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, অনলাইনের যুগে মানুষকে কাগজ–কলমে লেখার অভ্যস্থতায় ফিরিয়ে আনার জন্য কাজ করছে তারা। ‘হাওয়া’ ছবিটি দেশ ও দেশের বাইরে সব বাংলা ভাষাভাষী মানুষকে প্রভাবিত করেছে। সেই সুযোগে ‘হাওয়া’র নোটবুক মানুষকে কাগজ–কলমে ফিরিয়ে আনুক, এটাই কাম্য। এই প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে একজন মুখপাত্র বলেন, ‘একটা সময় সিনেমাপ্রেমীরা প্রিয় সিনেমার পোস্টার সংগ্রহ করে ঘরে সাজাতেন। “হাওয়া” নোটবুক সিনেমার স্যুভেনির হিসেবে মানুষের কাছে প্রিয় হয়ে উঠেছে। মানুষের মধ্যে “হাওয়া”র সুবাতাস ছড়িয়ে দিতে “হাওয়া” সিনেমার থিম ব্যবহার করে বিভিন্ন উপকরণ তৈরি করেছি। সিনেমাটি মানুষ যেমন পছন্দ করেছে, তেমনি সিনেমার থিমবেজ নোটবুক, ব্যাজ ও ব্যাগ সিনেমাপ্রেমী মানুষেরা পছন্দ করছে।’ মানুষের কাছে এ উপকরণগুলো সহজে পৌঁছে দেওয়ার জন্য ফেসবুক পেজ, বিভিন্ন ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ও অফলাইনে বিক্রি করা হচ্ছে।

default-image

চঞ্চল চৌধুরীসহ ‘হাওয়া’ সিনেমার প্রায় সব অভিনেতাই ‘হাওয়া’ সিনেমার ডিজাইনের সঙ্গে মিল রেখে তৈরি করা টি-শার্ট গায়ে দিয়ে প্রচারণা চালিয়েছেন। তারকাদের পাশাপাশি সাধারণ দর্শকেরাও ‘হাওয়া’র টি-শার্ট গায়ে, ‘হাওয়া’ টোটে ব্যাগ নিয়ে সিনেমা দেখতে আসছেন। তেমনই একজন শুভাকাঙ্ক্ষী মোহাম্মদপুরের জান্নাতুল ফেরদৌস। সীমান্ত সম্ভারের স্টার সিনেপ্লেক্সে বন্ধুদের সঙ্গে ‘হাওয়া’র টি-শার্ট গায়ে সিনেমা দেখতে এসেছেন। বললেন, ‘অনেক দিন পর বাংলা সিনেমায় সুবাতাস বইছে। সেই সুবাতাসকে “হাওয়া” সিনেমা দমকা হাওয়ায় পরিণত করেছে। বন্ধুরা মিলে হাওয়ার সাজে সেজে আমরাও শীতল হতে এসেছি।’

default-image

এ ছাড়া ফ্যাশন একসেসরিজ কোম্পানি বিস্কুট ফ্যাক্টরি এনেছে হাওয়া চশমা। বিস্কুট ফ্যাক্টরির পক্ষ থেকে প্রথম আলোকে বলা হয়, শুধু ভালো সিনেমার প্রচারের জন্য আরও নতুন নতুন ফ্যাশন অনুষঙ্গ নিয়ে কাজ করছে। যেমন জুতা, ফোনের কভার, বাক্স, ব্লাউজ ইত্যাদি। দর্শক চাইলে এগুলো কিনে সংগ্রহে রাখতে পারবেন। এভাবে তাঁরা আমাদের মতো ‘হাওয়া’র সঙ্গী হবেন।

default-image

হাওয়ার সুবাস প্রত্যেক হাওয়াপ্রেমীর কাছে পৌঁছে দিতে কালারটিসান নিয়ে এসেছে হাওয়ার অফিশিয়াল ডিজাইনের টি-শার্ট, মগ ও বিভিন্ন ধরনের পোস্টার।

ফ্যাশন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন