গত ১৩ সেপ্টেম্বর ২২ বছর বয়সী মাসা আমিনিকে ‘অসভ্য’ পোশাক পরার অভিযোগে ইরানের নীতি পুলিশ আটক করে। পরে পুলিশি হেফাজতে তাঁর মৃত্যু হয়। তখন ইরানের কর্তৃপক্ষ দাবি করে, আটক কেন্দ্রে অবস্থানের সময় হৃদ্‌রোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান তিনি।

মাসার মৃত্যুর পর ১৬ সেপ্টেম্বর ইরানের নাগরিকেরা রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ করেন। মাসা আমিনির মৃত্যুর ন্যায়বিচার দাবি করেন তাঁরা। ইরানের কর্তৃপক্ষ ও নীতি পুলিশের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। গ্রেপ্তার ও ভয়ভীতি উপেক্ষা করে কিছু নারী জনসমক্ষে চুল কেটে ও হিজাব পুড়িয়ে বিক্ষোভ দেখান। এখন সেই বিক্ষোভ ইরান ছাড়িয়ে চলছে বিশ্বের নানা প্রান্তে। প্রায় প্রতিদিনই গোপনীয়তার বেড়া ডিঙিয়ে গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়ে পড়ছে পুলিশের হাতে বিক্ষোভকারীদের মৃত্যুর খবর। এর আগে হলিউড তারকা অ্যাঞ্জেলিনা জোলি, জেসিকা চ্যাস্টেইন, বলিউড তারকা প্রিয়াঙ্কা চোপড়া, মডেল বেলা হাদিদ, কিম কার্ডাশিয়ান, সংগীত তারকা শাকিরা, জাস্টিন বিবারসহ বহু তারকা ইরানের নারী বিক্ষোভকারীদের প্রতি নিজেদের সমর্থন জানিয়েছেন।