অতিরিক্ত মাংস খাওয়ার স্বাস্থ্যঝুঁকি

রাজধানীর ল্যাবএইড হাসপাতালের প্রধান পুষ্টিবিদ সালমা পারভীন বলেন, মাংসের অতিভোজনে কোষ্ঠকাঠিন্য, গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা বা ডায়রিয়া হতে পারে। উচ্চ রক্তচাপের পাশাপাশি শরীরে ইউরিক অ্যাসিডের পরিমাণও বেড়ে যায়। এসব ছাড়া আরও বড় বড় রোগের সূত্রপাত ঘটতে পারে। ঈদের সময় সাধাণত গরু, মহিষ, খাসিসহ বিভিন্ন ধরনের লাল মাংসই বেশি খাওয়া হয়।

  • এসব লাল মাংস হৃদ্‌রোগের ঝুঁকি বাড়িয়ে দেয়।

  • বেড়ে যায় স্ট্রোকের ঝুঁকি।

  • পাকস্থলী, ক্ষুদ্রান্ত্র, বৃহদান্ত্র, কোলন, প্রোস্টেট ও স্তন ক্যানসারের ঝুঁকি তৈরি হয়।

  • নানা ধরনের রোগে ফুসফুস আক্রান্ত হতে পারে।

  • আর্থ্রাইটিসের ঝুঁকি বেড়ে যায়।

  • পিত্তথলিতে পাথর, পেপটিক আলসারসহ কিডনির জটিলতা হতে পারে।

জেনে নিন পরিমাণ

পুষ্টিবিদ সালমা পারভীনের বক্তব্য অনুযায়ী, মাংস খাওয়ার দৈনন্দিন পরিমাণ এক কথায় বলা কঠিন। তিনি বলেন, এ ক্ষেত্রে কিছু বিষয় বিচেনায় রাখতে হবে। প্রথমত দেহের আদর্শ ওজন। আবার যাঁরা নিয়মিত শারীরিক পরিশ্রম করেন, তাঁদের প্রোটিনের চাহিদা বেশি। মেয়েদের মাসিক চলাকালে বা গর্ভাবস্থায় প্রোটিনের চাহিদা দ্বিগুণ হয়ে যায়। ৬০ কেজি ওজনের একজন ব্যক্তির প্রোটিন গ্রহণের আদর্শ মাত্রা ৬০ গ্রাম। যদিও পুষ্টিনির্দেশনায় একজন পূর্ণবয়স্ক সুস্থ ব্যক্তির ক্ষেত্রে প্রতিদিন ১০০ গ্রাম প্রোটিন গ্রহণের কথা নিরাপদ বলা হয়েছে, তবু কারোই ৭০ গ্রামের বেশি খাওয়া উচিত নয়। প্রতিবেলায় ১৫ -২৫ গ্রাম, অর্থাৎ ২-৩ টুকরা মাংস খাওয়া নিরাপদ।

মেনে চলুন নির্দেশনা

এ সময় মাংস খাওয়ার উচ্ছ্বাসে সুষম খাবারের কথা যেন ভুলে না যাই। এ ছাড়া এই ঈদ মৌসুমে খাবার গ্রহণের ক্ষেত্রে নিম্নোক্ত নির্দেশনা অনুসরণ করতে পারেন।

  • শাকসবজি খাওয়ার পরিমাণ বাড়িয়ে দিন।

  • যথাযথ পদ্ধতিতে মাংস রান্না করুন। চর্বি বাদ দিয়ে, অল্প তেলে, উচ্চ তাপে রান্না করুন।

  • লেবুর রস, টক দই, ভিনেগার, পেঁপে প্রভৃতি মাংসকে নরম করে, যা হজমে সহায়ক ভূমিকা রাখে। তাই রান্নার সময় এগুলো ব্যবহার করতে পারেন।

  • মাংস খাওয়ার সময় সালাদ খাবেন।

  • রাতে মাংস না খাওয়াই ভালো।

  • যখনই মাংস খাবেন, এক বেলায় দুই থেকে তিন টুকরার বেশি খাবেন না।

  • উচ্চ রক্তচাপ বা কিডনির সমস্যার মতো জটিল রোগ আছে যাঁদের, তাঁরা মাংস এড়িয়ে চলুন। নেহাত খেতে ইচ্ছা করলে আপনার পুষ্টিবিদের সঙ্গে কথা বলে নিন।

সুস্থতা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন