• আঙুল ও হাতের তালুর পেশি ও টিস্যু সংকুচিত হলে হঠাৎ আঙুল বাঁকা হয়ে যায়, আর সোজা করা যায় না। একে বলে ট্রিগার ফিঙ্গার।

  • হাত ও আঙুলের ত্বক মোমের মতো পুরু হয়ে যেতে পারে। পায়ের সন্ধিতে জটিল সমস্যা হয়, যার নাম চারকোট জয়েন্ট।

যা করতে হবে

জীবনযাপন পরিবর্তনের মাধ্যমে বেশির ভাগ সমস্যা প্রতিরোধ করা সম্ভব।

  • ওজন কমাতে হবে। শর্করাযুক্ত খাবার কমিয়ে শাকসবজি, ফল, গোটা খাদ্যশস্য, চর্বিহীন মাংস, মাছ, বাদাম ও বীজজাতীয় খাবার খেতে হবে।

  • হাড়ের সন্ধির ওপর চাপ কমাতে ওয়াকিং স্টিক, ব্রেচ, নি–ক্যাপ, কোমরে বেল্ট ও কুশনযুক্ত জুতা ব্যবহার করা যেতে পারে।

  • একটানা একই ভঙ্গিতে বসে থাকা ঠিক নয়। এক ঘণ্টা বিরতি দিয়ে অন্তত পাঁচ মিনিট হাঁটাহাঁটি করবেন। সিঁড়িতে ওঠা-নামা বেশি না করে প্রয়োজনে লিফট ব্যবহার করতে হবে।

  • ধূমপান ও মদ্যপান থেকে বিরত থাকতে হবে।

  • নারীরা দীর্ঘদিন জন্মনিয়ন্ত্রণ বড়ি খাবেন না। গর্ভাবস্থায় নারীরা উঁচু হিলযুক্ত জুতা পরবেন না। প্রসবের পর দীর্ঘ সময় দাঁড়িয়ে থাকবেন না।

  • ফিজিওথেরাপিস্টের পরামর্শ অনুযায়ী ব্যায়াম বাড়িতে করা যায়। অবস্থা বিবেচনায় চিকিৎসক প্রয়োজনে ব্যথানাশক ওষুধ ও ইন্ট্রাআর্টিকুলার ইনজেকশন ইত্যাদি দিতে পারেন।

এম ইয়াছিন আলী, চিফ কনসালট্যান্ট ও চেয়ারম্যান, ঢাকা সিটি ফিজিওথেরাপি হাসপাতাল, ধানমন্ডি