যেভাবে ব্যবহার করবেন

১. একটি পাত্রে সমান সমান আপেল সিডার ভিনেগার আর কুসুম গরম পানি মিশিয়ে নিন। চুলে শ্যাম্পু করার পর এই ভিনেগার মেশানো পানিতে চুল ধুয়ে ১৫ মিনিট রেখে দিন। এরপর শুধু পানি দিয়ে চুল পরিষ্কার করে নিন। সপ্তাহে এক থেকে দুবার এভাবে চুলে ভিনেগার ব্যবহার করলে খুশকি চলে যাবে।

২. এক কাপ পানিতে দুই টেবিল চামচ আপেল সিডার ভিনেগার মিশিয়ে নিন। মিশ্রণটি এবার একটি স্প্রে বোতলে ভরে নিন। চুল শ্যাম্পু দিয়ে পরিষ্কার করে ধুয়ে ফেলার পর মাথার ত্বক ও চুলে এই ভিনেগার মেশানো পানি স্প্রে করুন। চুল শুকানো পর্যন্ত অপেক্ষা করুন।

৩. একটি বাটিতে পানি ও আপেল সিডার ভিনেগার (১: ১) নিয়ে তার মধ্যে কয়েক ফোঁটা চা–গাছের তেল (টি ট্রি অয়েল) ভালো করে মিশিয়ে নিন। এবার সেটা মাথার ত্বকে ম্যাসাজ করে মেখে নিন। ১৫ মিনিট অপেক্ষা করে চুলে শ্যাম্পু করে নিন। সপ্তাহে একবার এই যত্নের মাধ্যমে দ্রুত খুশকি কমে যাবে।

৪. এক কাপ পানিতে এক টেবিল চামচ অ্যাপেল সিডার ভিনেগার মেশান। এবার সেখানে পাঁচ–ছয় টেবিল চামচ অ্যালোভেরা জেল মেশান। এটা মাথার চুল ও ত্বকে মেখে নিন। ১০ মিনিট পর চুল ধুয়ে ফেলুন। এভাবে সপ্তাহে দুবার ব্যবহার করলে খুশকি চলে যাবে।

৫. এক কাপ পানির সঙ্গে এক চতুর্থাংশ কাপ আপেল সিডার ভিনেগার মেশান। একটি লেবুর অর্ধেকটা পরিমাণ রস ওই ভিনেগার মেশানো পানিতে ঢেলে মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণ চুলে ব্যবহার করে একটি তোয়ালে দিয়ে চুল মুড়িয়ে রাখুন ৩০ মিনিট। এরপর তোয়ালে খুলে শ্যাম্পু ও কন্ডিশনার দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন। এই মিশ্রণ ব্যবহারে খুশকি কমবে, মাথায় জ্বালাপোড়া ভাব থাকলে সেটাও সেরে যাবে।

সূত্র: ফেমিনা