ফ্যান ঠিকঠাক চার্জ করতে কী কী নিয়ম মানা জরুরি

প্রথম আলো:

ওয়ালটনের কত ধরনের ফ্যান আছে?

আমাদের প্রায় ১৪ ক্যাটাগরির ৮০টির বেশি মডেলের ফ্যান আছে। প্রায় সব ধরনের ক্রেতাদের টার্গেট করেই আমরা ফ্যান তৈরি করেছি।

প্রথম আলো :

 রিচার্জেবল ফ্যানের নানা রকম ভিন্নতা কেন থাকে?

গ্রাহক যেন তাঁর চাহিদামতো পছন্দের ফ্যানটি বাছাই করতে পারেন, তাই এত মডেল। বর্তমানে আমাদের ৬ ইঞ্চি, ৯ ইঞ্চি, ১২ ইঞ্চি, ১৪ ইঞ্চি, ১৬ ইঞ্চি ও ১৭ ইঞ্চি আকারের
বিভিন্ন মডেলের রিচার্জেবল ফ্যান বাজারে পাওয়া যায়।

সাক্ষাৎকারে ফ্যান ভালো রাখার পরামর্শ দিলেন ওয়ালটন ইলেকট্রিক্যাল অ্যাপ্লায়েন্সের চিফ বিজনেস অফিসার সোহেল রানা
সোহেল রানা
প্রথম আলো:

রিচার্জেবল ফ্যান ব্যবহারের সুবিধা কী?

এ ফ্যান এসি ও ডিসি দুটি মোডেই চালানো যায়। এ ছাড়া চার্জের সুবিধা থাকায় বিদ্যুৎ না থাকলেও অনেক ঘণ্টা বাতাস মেলে। অধিকাংশ রিচার্জেবল ফ্যান পোর্টেবল
হওয়ায় সহজে বহন করা যায়। এসব ফ্যান অন্যান্য ফ্যানের তুলনায় অনেক বিদ্যুৎ–সাশ্রয়ী।

প্রথম আলো :

ফ্যান ঠিকঠাক চার্জ করতে কী কী নিয়ম মানা জরুরি?

এক মাস পরপর (বিশেষত শীত মৌসুমে) কম করে একবার ব্যাটারি ফুল চার্জ দিয়ে ফ্যান চালিয়ে দেখা উচিত। এতে ফ্যানের ব্যাটারি ভালো থাকে। ঝড় বা বৃষ্টির সময় ফ্যান ও এসি পাওয়ার সকেট থেকে খুলে রাখুন। ফুল চার্জের পরে সংযোগ পাওয়ার খুলে রাখা ভালো, এতে ব্যাটারি হেলথ ভালো থাকে। ব্যাটারি লো হওয়ার কারণে ফ্যান বন্ধ হয়ে গেলে চার্জ না দিয়ে বারবার অন করার চেষ্টা করবেন না।

প্রথম আলো:

ফ্যান ভালো রাখার টিপস জানতে চাই।

সিলিং ফ্যানে প্রতি পাঁচ বছরে একবার ক্যাপাসিটর পরিবর্তন করা উচিত। ফ্যানের সঙ্গে থাকা ম্যানুয়াল দেখে ফ্যানের রেগুলেটরের ব্যবহার নিশ্চিত করুন। টেবিল ফ্যানের ক্ষেত্রে বল প্রয়োগ করে ফ্যানের ঘাড় ঘোরানোর চেষ্টা করা যাবে না। ফ্যানের গতি নিয়ন্ত্রণের সঠিক ব্যবহার জানতে হবে। নিয়ম মেনে রিচার্জেবল ফ্যানের চার্জ ও ডিসচার্জ করতে হবে।