বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আজকাল ফুলকপির রাইস খুবই জনপ্রিয়তা পেয়েছে। আমাদের আজকের রেসিপি ফুলকপির ফ্রায়েড রাইস। রাইস বলা হলেও এ রেসিপিতে চালের কোনো ব্যবহার হয়নি! ফুলকপি কুচি করে এ রাইস তৈরি করা হয়েছে। এটি ভীষণ পুষ্টিকর এবং আদর্শ একটি খাদ্য। চমৎকার এই রেসিপিটি সিডনি থেকে পাঠিয়েছেন মীর সাবিনা আক্তার

default-image

ফুলকপিতে ভিটামিন কে, সি, বি৬ এবং পটাশিয়াম পাওয়া যায়। এতে ফ্যাট ও কার্বোহাইড্রেট খুবই কম পরিমাণে থাকায় এটি ডায়েট মিল হিসেবে গুরুত্বপূর্ণ এবং আদর্শ একটি খাদ্য। স্বাদে ও গন্ধে কোনো অংশেই সাধারণ ফ্রায়েড রাইসের চাইতে কম নয় চাল ছাড়া এ ফ্রায়েড রাইস।

চলুন উপকরণ ও রন্ধনপ্রণালি জেনে নেওয়া যাক।

উপকরণ

ফুলকপির রাইস ১.৫ কাপ, মিক্সড ভেজিটেবলস ১ কাপ, বাটার ১-২ চা–চামচ, নারকেল তেল ১–২ চামচ, রসুনকুচি ১ চামচ, পেঁয়াজকুচি ১–৩ কাপ, গোলমরিচের গুঁড়া ১–২ চামচ, সয়া সস ২-৩ চা–চামচ, ডিম ২টি, চিলি ফ্লেক্স ১ চামচ, সেসেমি অয়েল (তিলের তেল) ১ চামচ, পেঁয়াজপাতার কুচি ১–৩ কাপ, লবণ স্বাদ অনুযায়ী।

default-image

রন্ধনপ্রণালি

প্রথমেই ফুলকপি পরিষ্কার করে ধুয়ে একদম মিহি কুচি করে নিতে হবে।এটা আপনি গ্রেট করে নিলে একদম মিহি কুচি হবে, দেখতে যেন চালের মতো লাগে।
মাঝারি আঁচে চুলা জ্বালিয়ে তাতে একটি ছড়ানো ফ্রাইপ্যানে বসিয়ে দিতে হবে। ফ্রাইপ্যান গরম হলে বাটার দিয়ে ফেটানো ডিম দিয়ে দ্রুত নেড়ে ঝুরি করে নিতে হবে। ডিমগুলো অন্য পাত্রে তুলে রেখে সেই প্যানে অল্প বাটার আর নারকেল তেল দিতে হবে। এখানেই শেষ নয় কিন্তু।

তেল গরম হলে রসুনকুচি দিয়ে একটু নেড়ে পেঁয়াজকুচি দিতে হবে। পেঁয়াজ স্বচ্ছ হয়ে এলে মিক্সড ভেজিটেবলস, লবণ অল্প গোলমরিচের গুঁড়া আর চিলি ফ্লেক্স দিয়ে একটু ভাজতে হবে। একটু ভেজে তাতে ফুলকপির রাইস আর সয়া সস দিয়ে কিছুক্ষণ ভাজতে হবে। তেল কম মনে হলে একটু অলিভ অয়েল দেওয়া যায়। প্রায় ৩-৪ মিনিট ভেজে এতে ডিম দিতে হবে এবং পেঁয়াজপাতার (কলিসহ) কুচি দিয়ে দিতে হবে। সেসেমি অয়েল দিয়ে একটু নেড়ে রান্না শেষ করতে হবে।

default-image

একটি পাত্রে সুন্দর করে সাজিয়ে পরিবেশন করুন অসাধারণ মজার এই ফুলকপির এগ ফ্রায়েড রাইস। মুরগির মাংস ও চিংড়ি মাছ দিয়েও মজাদার ফুলকপির ফ্রায়েড রাইস করে নেওয়া যাবে।

রসনা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন