default-image
বিজ্ঞাপন

এমনি কয়েকটি খাবারের রেসিপি রইল সামনের বৈশাখ উপলক্ষে।

রেসিপিগুলো দিয়েছেন সংগীত শিল্পী চন্দনা মজুমদার এবং অভিনয় শিল্পী অপর্ণা ঘোষ। গান এবং অভিনয়ের বাইরে এ দুজন রান্না করেন নিজেদের পছন্দ মতো। বৈশাখে তাঁদের পছন্দের কিছু রেসিপি থাকল আমাদের পাঠকদের উদ্দেশ্যে।

শজনের চচ্চড়ি

উপকরণ

শজনে ডাঁটা আধা কেজি, সরিষাবাটা চার চা-চামচ (এর মধ্যে দুটি কাঁচা মরিচ দিতে হবে), গোটা সরিষা আধা চা-চামচ, তেজপাতা ও শুকনো মরিচ ২টি, সরিষার তেল পরিমাণমতো।

default-image

প্রণালি

কড়াইতে তেল গরম করে শুকনা মরিচ, তেজপাতা ও আস্ত সরিষার ফোড়ন দিন। এবার শজনে আর পরিমাণমতো লবণ দিয়ে কষিয়ে নিন। দুই কাপ পানি দিয়ে ১০ মিনিট ঢেকে রাখুন। এরপর সরিষাবাটা দিয়ে ভালো করে নেড়ে নামিয়ে নিন শজনে চচ্চড়ি।

বিজ্ঞাপন

শজনে ডাঁটার ঝালি

উপকরণ

শজনে ডাঁটা আধা কেজি, টমেটো ২টি, আলু ২টি, মাষকলাই ডালের বড়ি পরিমাণমতো। গোটা জিরা সামান্য। কাঁচা মরিচ ও তেজপাতা ৫-৬টি করে। সরিষার তেল, হলুদ, লবণ ও চিনি পরিমাণমতো।

default-image

প্রণালি

টমেটো আর আলু পাতলা করে কেটে নিন। কড়াইয়ে তেল গরম দিয়ে বড়িগুলো হালকা লাল করে ভেজে নামিয়ে নিন। কড়াইতে আবারও তেল দিয়ে গরম জিরা, তেজপাতা ফোড়ন দিয়ে সবজিগুলো ঢেলে দিন। হলুদ, লবণ, চিনি ও কাঁচা মরিচ দিয়ে কষিয়ে নিন। এবার বড়িগুলো আধা ভাঙা করে তরকারিতে দিয়ে আবারও কষিয়ে নিতে হবে। এরপর পানি দিয়ে নেড়ে ১৫ থেকে ২০ মিনিট ঢেকে রাখুন। ঝোল ঝোল হয়ে এলে ভাজা জিরার গুঁড়া দিয়ে নামিয়ে ফেলুন।

টক ডাল

উপকরণ

মসুর ডাল ২৫০ গ্রাম, গুটি আম পরিমাণমতো, কাঁচা মরিচ, সরিষার তেল ও লবণ পরিমাণমতো।

default-image

প্রণালি

আমগুলো ছিলে টুকরা করে পানিতে ভিজিয়ে রাখুন। ডাল ভালো করে ধুয়ে কাঁচা মরিচ, লবণ ও সরিষার তেল দিয়ে সেদ্ধ বসিয়ে দিন। এবার পানিতে ভেজানো আমগুলোর কষ ছাড়াতে হালকা গরম পানিতে ভাপ দিয়ে নিন। সেদ্ধ ডালটুকু ভালো করে ঘুঁটে নিয়ে তাতে আমগুলো দিয়ে দিন। এবার কড়াইতে তেল গরম করে শুকনা মরিচ, তেজপাতা, সরিষা দিয়ে ডালটা সম্ভার দিয়ে নামিয়ে নিন।

পাটশাক ঝোল

উপকরণ

খেসারি ডাল ২০০ গ্রাম, পাটশাক ছয় আঁটি, কাঁচা মরিচ চারটি, হলুদ, লবণ, সরিষার তেল ও পানি পরিমাণমতো।

default-image

প্রণালি

প্রথমে ১ লিটার পানিতে খেসারি ডাল সেদ্ধ করে নিন। এবার ১ চা-চামচ সরিষার তেল, লবণ ও কাঁচা মরিচ দিয়ে ডালটা ভালো করে নেড়ে নামিয়ে রাখুন। পাট পাতা কুচিয়ে নিন। কড়াইতে তেল গরম করে কালিজিরা ফোড়ন দিন। পাট পাতা আর পরিমাণমতো লবণ দিয়ে ভালো করে নাড়তে থাকুন। শাক হালকা ভাজা হলে এর মধ্যে ডালটুকু ঢেলে ১০ মিনিট রেখে নামিয়ে নিন।

বিজ্ঞাপন

পাচন

উপকরণ

পটল, আলু, মিষ্টি কুমড়া, শসা, কাঁচা কাঁঠাল, করলা, বটের ফল, কাঁকরোল, ধুন্দুল, ফুলকপি, বাঁধাকপি, ঢেঁকিশাক, তারা ডাঁটা, আদা গুনগুনি শাক, লাউ, বেগুন, চাল কুমড়া ও পেঁপে পরিমাণমতো। পাঁচফোড়ন ১ চা-চামচ, শুকনা মরিচ ৩টি, কাঁচা মরিচ ৩টি, আদা বাটা ১ চা-চামচ, জিরা বাটা ১ চা-চামচ ও সরষে বাটা ১ চা-চামচ।

default-image

প্রণালি

পরিমাণমতো লবণ ও হলুদ গুঁড়া দিয়ে সবজি ভাপে বসাতে হবে। এরপর অন্য একটি পাত্রে তেল, পাঁচফোড়ন, শুকনো মরিচ, কাঁচা মরিচ, আদা বাটা, জিরা বাটা ও সরষে বাটা দিয়ে সবজিগুলো কষিয়ে নিন। বেশিক্ষণ রাখার দরকার নেই। তরকারি নামানোর আগে অল্প চিনি দিয়ে নিতে পারেন।

শিউলি পাতার বড়া

উপকরণ

শিউলি পাতা পরিমাণমতো, বেসন আধা কাপ, চালের গুঁড়া আধা কাপ, আদা বাটা আধা চা-চামচ, পানি পরিমাণমতো, জিরা বাটা আধা চা-চামচ, হলুদ সামান্য পরিমাণ, কালিজিরা ১ চা-চামচ, লবণ পরিমাণমতো।

default-image

প্রণালি

বেসন এবং চালের গুঁড়া পানি দিয়ে গুলিয়ে তার সঙ্গে অন্য সব উপকরণ মিশিয়ে নিন। শিউলি পাতার ওপর খসখসে আবরণ তুলে ফেলে তা ধুয়ে বেসনের মিশ্রণে কিছুক্ষণ ডুবিয়ে রাখুন। এরপর ডুবো তেলে পাতাগুলো ভেজে নিন।

শসা সুক্তো

উপকরণ

খোসা ছাড়ানো শসা ১টা (ফালি করে নিতে হবে), আদা বাটা ১ চা-চামচ, নারকেল বাটা ২ চা-চামচ, দুধ আধা চামচ, তেজপাতা ২টি, সরষে দানা ১ চামচ, হলুদ গুঁড়া ১ চিমটি, ঘি অর্ধেক চা-চামচ, লবণ পরিমাণমতো।

default-image

প্রণালি

প্রথমে একটি পাত্রে অল্প তেল ঢেলে তেজপাতা ও সরষে দিয়ে ফোড়ন দিয়ে নিতে হবে। এরপর এতে ফালি করে কাটা শসা ঢেলে দিন। শসা নরম হয়ে এলে এতে আদা বাটা দিয়ে একটু নেড়ে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে রাখুন। কিছুক্ষণ পর শসা আরও একটু নরম হয়ে এলে এর মধ্যে নারকেল বাটা দিয়ে আবারও একটু নেড়েচেড়ে নিতে হবে। এই পদে পানি দেওয়ার প্রয়োজন নেই। শসা থেকেই পানি ছাড়বে। নামানোর আগে একটু দুধ ও হলুদ দিয়ে নিতে হবে। একদম শেষে একটু ঘি দিয়ে নাড়িয়ে নামিয়ে ফেলুন।

রসনা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন