বিজ্ঞাপন

ইলুমিনেটিং ইয়েলোতে নতুন সংস্করণ

প্যানটোন ইনস্টিটিউট প্রতিবছর সর্বজনীন রঙের ভাষা প্রদান করে। সে জন্য তারা হালের ট্রেন্ডকে মাথায় রেখে কালার অব দ্য ইয়ার নির্বাচন করতে বিভিন্ন গ্লোবাল ব্র্যান্ডের সঙ্গে অংশীদারত্ব করে। এ বছর তারা দুটি রং নির্বাচিত করেছে, যার একটি হচ্ছে ইলুমিনেটিং ইয়েলো। এই রঙের থিম দ্বারা অনুপ্রাণিত হয়ে তরুণদের পছন্দের ব্র্যান্ড রিয়েলমি তাদের রিয়েলমি ৮ প্রো হ্যান্ডসেটের ইলুমিনেটিং ইয়েলো রঙের সংস্করণ এনেছে।

default-image

এই রংকে বলা যায় তরুণদের আকাঙ্ক্ষা এবং প্রত্যাশার প্রতীক।
ফোনটি তরুণদের যেমন নতুনভাবে উজ্জীবিত করবে, তেমনি উদ্ভাবনী বিষয় অনুসন্ধানের জন্য তাঁদের মধ্যে একটি অনুসন্ধিৎসু মন তৈরি করবে। তরুণদের কথা বিবেচনা করে রিয়েলমি সব সময় স্টাইলিশ ডিজাইনের স্মার্টফোনে সেরা ফিচার সরবরাহ করে তরুণদের ‘আলোকিত’ করে। ইলুমিনেটিং ইয়েলো তাঁদের আরও স্টাইলিশভাবে নিজেদের তুলে ধরতে সক্ষম করবে।

নতুন রঙের থিমে দুর্দান্ত ডিজাইন

এই প্যানটোন অনুপ্রাণিত রংটি রিয়েলমি ৮ প্রোকে আরও স্টাইলিশ ও ট্রেন্ডি করে তোলার মাধ্যমে এর পুরো ডিজাইন পোর্টফোলিওতে পরিবর্তন এনেছে। এই সংস্করণে একটি উজ্জ্বল হলুদ রঙের ক্যামেরা মডিউল রয়েছে। পাশাপাশি হ্যান্ডসেটটির পেছনে একই ধরনের রঙে ‘ডেয়ার টু লিপ’ স্লোগানটি ফুটিয়ে তোলা হয়েছে, যা অন্ধকারেও নজর কাড়ে। স্মার্টফোনটির ব্যাকশেলে হলুদ রঙের ডিজাইন রয়েছে, যা একটি চমৎকার আউটলুক দেয়।

এ ছাড়া রিয়েলমি ৮ প্রো রিয়েলমি ইউআই ২.০ যুক্ত প্রথম ফোন, যা অ্যান্ড্রয়েড ১১-এর ভিত্তিতে তৈরি এবং ব্যবহারকারীকে দ্রুততর, মসৃণ এবং নিরাপদ অভিজ্ঞতা প্রদান করে। ব্যবহারকারীদের সৃজনশীলতা, সামাজিক যোগাযোগ এবং উৎপাদনশীলতা—এই তিন বিষয়কে মুখ্য করে রিয়েলমি তাদের ইউআই ২.০ তৈরি করেছে।
মাত্র ১৭৬ গ্রাম ওজন ও ৮.১ মিলিমিটার পুরুত্বের রিয়েলমি ৮ প্রো বেশ স্লিম এবং হালকা। সুবিশাল স্লোগান ডিজাইন, ফোনটিকে আরও আধুনিক রূপ দান করেছে এবং অন্য যেকোনো সেটের থেকে একে আলাদা করে তুলেছে। ইনফিনিট বোল্ড ডিজাইনের সঙ্গে রিয়েলমি ৮ প্রোর ৬.৪ ইঞ্চি সুপার অ্যামোলেড স্ক্রিনের ফুল ডিসপ্লে অত্যন্ত অসাধারণ এবং ব্যবহারকারীদের জন্য আরও বাস্তবধর্মী এবং উজ্জ্বল ডিসপ্লে অভিজ্ঞতা নিশ্চিত করে।

১০৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা সেটআপযুক্ত সবচেয়ে শক্তিশালী ফোন

রিয়েলমি ৮ প্রো স্মার্টফোনটিতে রয়েছে ১০৮ মেগাপিক্সেলের ইনিফিনিট ক্ল্যারিটি ক্যামেরা, ৮ মেগাপিক্সেল আলট্রা ওয়াইড-অ্যাঙ্গেল লেন্স, ২ মেগাপিক্সেল ব্ল্যাক অ্যান্ড হোয়াইট পোর্ট্রেট লেন্স এবং ২ মেগাপিক্সেল ম্যাক্রো লেন্স, যা বাজারের অন্য ফোন থেকে ৮ প্রোকে অনেক এগিয়ে রেখেছে। এটি আসলেই অসাধারণ একটি ফোন। এটি গোটা স্মার্টফোন ইন্ডাস্ট্রির সর্বোচ্চ পিক্সেলযুক্ত স্মার্টফোন এবং এর প্রাইমারি ক্যামেরায় ১০৮ মেগাপিক্সেলের সঙ্গে রয়েছে থার্ড জেনারেশন আইএসওসেল এইচএম ২ সেন্সর, ১/১.৫২ ইঞ্চির এক্সট্রা লার্জ সেন্সর ও ১২০০০ x ৯০০০–এর সর্বোচ্চ রেজল্যুশন।
আইএসওসেল প্লাস পিক্সেল আইসোলেশন প্রযুক্তির সাহায্যে এইচএম ২ অপটিকস লস এবং ক্রস কালারের মাত্রা কমিয়ে আনে।

স্মার্ট আইএসও প্রযুক্তির কল্যাণে রিয়েলমি ৮ প্রোর সাহায্যে রঙিন, স্পষ্ট এবং উজ্জ্বল ছবি তোলার আনন্দ উপভোগ করা যাবে, আর পিক্সেল বিনিং প্রযুক্তি উন্নত মানের ছবি নিশ্চিত করবে। অন্যদিকে, ফটোগ্রাফিপ্রেমীরা আলট্রামাইক্রো লেন্সের সাহায্যে ক্ষুদ্র জগতের নান্দনিক সৌন্দর্য ক্যাপচার করতে পারবেন এবং আলট্রাওয়াইড লেন্স দিয়ে পেছনে না ঝুঁকে অনায়াসে ছবি তুলতে পারবে। এমন চমৎকার সব ফিচারের বাইরেও রিয়েলমি ৮ প্রোর ক্যামেরা সেটআপে রয়েছে সুপার নাইটস্কেপ,৩X ইন-সেন্সর জুম, বিশ্বের প্রথম স্মার্টফোন স্টারি টাইম-ল্যাপস ভিডিও এবং টিল্ট-শিফট মোড, যা আগে কখনো দেখা যায়নি।

৫০ ওয়াট সুপারডার্ট চার্জের সঙ্গে দুর্দান্ত ব্যাটারি

রিয়েলমি ৮ প্রোতে রয়েছে ৫০ ওয়াটের সুপারডার্ট চার্জার। ফলে মাত্র ৪৭ মিনিটের মধ্যেই শতভাগ চার্জ হয়ে যায়। আর মাত্র ১৭ মিনিটে এটি প্রায় ৫০ ভাগ পর্যন্ত চার্জ গ্রহণ করতে সক্ষম। পাশাপাশি দুর্দান্ত পারফরমেন্সের জন্য রিয়েলমি ৮ প্রোতে রয়েছে শক্তিশালী স্ন্যাপড্রাগন ৭২০জি প্রসেসর।

স্টাইল, পারফরমেন্স, ফিচারে রিয়েলমি ৮ প্রো-ইলুমিনেটিং ইয়েলো দারুণ একটি স্মার্টফোন। দেশের বাজারে রিয়েলমি ৮ প্রো পাওয়া যাচ্ছে ৮ + ১২৮ জিবির মেমোরি ভ্যারিয়েন্টে এবং ইল্যুমিনেটিং ইয়েলো রঙে। দেশের বাজারে এই প্রথম অফিশিয়ালি নম্বর সিরিজের স্পেশাল এডিশন নিয়ে এল রিয়েলমি। তরুণদের কথা মাথায় রেখে এই স্পেশাল এডিশনের দাম রিয়েলমি ৮ প্রোর রেগুলার এডিশনের মতো মাত্র ২৭ হাজার ৯৯০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। লিমিটেড এডিশনের এই স্মার্টফোন কেনার জন্য ক্লিক করতে পারে: https://rebrand.ly/Buy_Now_realme8Pro

কেনাকাটা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন