বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে অভিভাবক ও কর্মচারীদের প্রায়ই টিউশন ফি, পরীক্ষার ফি বা অন্য যেকোনো ফির পেমেন্ট–সংক্রান্ত নানান সমস্যার মুখোমুখি হতে দেখা যায়। পাশাপাশি রয়েছে কিছু ভোগান্তি, যেমন দীর্ঘ সময় লাইনে দাঁড়িয়ে থেকে অপেক্ষা করা। এ ছাড়া পেমেন্টের নিরাপত্তাজনিত বিভিন্ন সমস্যা তো রয়েছেই।
সাম্প্রতিক সময়ে করোনা মহামারির কারণে পেমেন্ট প্রক্রিয়ায় আরও বেশি সমস্যার সম্মুখীন হতে হচ্ছে সংশ্লিষ্টদের। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার জন্য একটি কার্যকর এবং সহজেই ব্যবহারযোগ্য ডিজিটাল পেমেন্ট প্রক্রিয়ার প্রত্যাশায় ছিলেন অনেকেই।
এই বিষয়গুলো মাথায় রেখেই সূর্যপে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বিনা মূল্যে ইনস্টলেশন সেবা দিচ্ছে। এখানেই শেষ নয়, যেসব প্রতিষ্ঠানে ওয়েবসাইট নেই, সেগুলোর জন্য সূর্যপে দিচ্ছে পেমেন্ট লিংকের সুবিধা। এ ক্ষেত্রে সূর্যপে ডিজিটাল পেমেন্ট প্রক্রিয়ায় এনেছে নতুন গতি, স্বাচ্ছন্দ্য ও নিরাপত্তা।

সূর্যমুখী লিমিটেডের এমডি ও সিইও ফিদা হক বলেন, ‘আমাদের দেশে প্রাথমিক পর্যায়ের প্রায় ১ কোটি ৮০ লাখ শিক্ষার্থীর পাশাপাশি রয়েছে কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় ও অন্যান্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের অসংখ্য শিক্ষার্থী। তাদের মা–বাবাকে ঘণ্টার পর ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে হয় সন্তানদের টিউশন ফি দেওয়ার জন্য, যা খুবই ভোগান্তির বিষয়। এই ফি ও পাওনা পরিশোধে তাই প্রয়োজন এক যুগান্তকারী পরিবর্তন, যা শিক্ষার্থীদের মা–বাবার জীবনকে অনেকটা সহজ করে তুলবে। সূর্যপে সেই পরিবর্তনই নিয়ে এসেছে।’

সূর্যপে পেমেন্ট গেটওয়ে ভিসা, মাস্টারকার্ড, অ্যামেক্স, ডাইনার্স ক্লাব, নেক্সাস বা কিউক্যাশ কার্ডের পাশাপাশি বিকাশ, নগদ, ট্যাপ, উপায়, এমক্যাশ, রকেটসহ অনেক মাধ্যম পেমেন্টের সুবিধা দেয়। তাই এগুলোর যেকোনো একটি মাধ্যমে ইন্টারনেটে খুব সহজে পেমেন্ট সংগ্রহ করা যাবে।

তাই এখনই সময় পেমেন্ট–সম্পর্কিত সব ঝামেলা দূরে ফেলে সূর্যপের সাহায্যে ডিজিটালি সহজ, দ্রুত ও কোনো ঝুঁকি ছাড়াই পেমেন্ট সংগ্রহ করার।

বিস্তারিত জানা যাবে সূর্যপের ওয়েবসাইট www.shurjopay.com.bd এর মাধ্যমে। হেল্পলাইন নাম্বার +880 9643-207001।

কেনাকাটা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন