সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, জাতীয় এসএমই পণ্য মেলায় অংশ নেওয়া ৩২৫ প্রতিষ্ঠানের মধ্যে সবচেয়ে বেশি থাকছে ফ্যাশন পণ্যের স্টল, ১৩০টি। এ ছাড়া থাকবে খাদ্য ও কৃষি প্রক্রিয়াজাতকরণ পণ্যের ৪৫টি, হস্ত ও কারুশিল্পের ৩৮, চামড়াজাত পণ্য খাতের ৩৬, পাটজাত পণ্যের ৩৫, তথ্যপ্রযুক্তি পণ্য ও সেবা খাতের ৮, হালকা শিল্পপণ্য খাতের ৬, প্লাস্টিক পণ্যের ৫ এবং ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিকস খাতের ৩টি প্রতিষ্ঠান।

মেলায় অংশগ্রহণের ক্ষেত্রে কৃষি যন্ত্রপাতি, আইসিটি, চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য, হালকা প্রকৌশল, পাট ও পাটজাত পণ্য, প্লাস্টিক, হস্ত ও কারুশিল্পের সঙ্গে সম্পৃক্ত এসএমই প্রতিষ্ঠানগুলোকে অগ্রাধিকার দেওয়া হয়েছে।

আয়োজকেরা জানান, প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত মেলা প্রাঙ্গণ দর্শনার্থীদের জন্য উন্মুক্ত থাকবে। মেলায় বিনা মূল্যে প্রবেশ করা যাবে।

এসএমই উদ্যোক্তাদের পণ্যের প্রচার ও প্রসারে ২০১২ সাল থেকে জাতীয় এসএমই পণ্য মেলা আয়োজন করছে এসএমই ফাউন্ডেশন। গত বছর নবম এসএমই পণ্য মেলায় বিক্রি হয়েছে প্রায় ১০ কোটি টাকার পণ্য। আরও প্রায় ১৭ কোটি টাকার অর্ডার পেয়েছিলেন উদ্যোক্তারা।