এ রকম ভাবনা থেকেই প্রতিবছর ১৯ নভেম্বর বিশ্বজুড়ে পালিত হয় আন্তর্জাতিক পুরুষ দিবস। ১৯৯২ সালে যুক্তরাষ্ট্রের টমাস ওস্টার ধারণাটির জন্ম দেন এবং সে বছর ফেব্রুয়ারিতে এটি পালিত হয়। এরপর ১৯৯৯ সালে ইউনিভার্সিটি অব ওয়েস্ট ইন্ডিজের ইতিহাসের অধ্যাপক জেরোম তিলক সিংয়ের প্রস্তাবে আনুষ্ঠানিকভাবে এটির দিন ধার্য হয় ১৯ নভেম্বর। এ বছর দিবসটির প্রতিপাদ্য—হেলপিং মেন অ্যান্ড বয়েজ—পুরুষ ও ছেলেদের সাহায্য করো।

আজকের দিনটি বিশেষভাবে পালন করতে পারেন। প্রিয় পুরুষদের দিতে পারেন প্রিয় কোনো উপহার। ঘরে বা বাইরে এক বেলা দারুণ খাবারের আয়োজন করা যায়। একসঙ্গে সিনেমা দেখতে যেতে পারেন। ঘুরতে গেলেও মন্দ হয় না। নিদেনপক্ষে জীবনের সেরা পুরুষকে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে দু-চার লাইন লিখতে পারেন।

ডেজ অব দ্য ইয়ার অবলম্বনে