রাসকিন বন্ড কেন এখনো অবিবাহিত

রাসকিন বন্ড

ব্রিটিশ বংশোদ্ভূত ভারতীয় লেখক রাসকিন বন্ড বহু আগেই ঠিক করে রেখেছিলেন, তিনি কখনো বিয়ে করবেন না। এ ব্যাপারে এক অনুষ্ঠানে বক্তৃতাকালে তিনি বলেছিলেন, ‘একবার ভেবেছিলাম এক প্রতিবেশী মেয়ে আমার প্রতি কিছু দুর্বল, খুব খুশি হয়েছিলাম। কিন্তু পরে জানতে পারলাম, আমার কাছে তার আকাঙ্ক্ষা ছিল অন্য রকম।’

২২ বছর বয়সে চোখে সামান্য সমস্যার কারণে তিনি চশমা পরা শুরু করলে তার এক বন্ধু বলেন, ‘এখন তোমাকে লেখক লেখক মনে হচ্ছে।’ দ্য ইন্ডিয়া আই লাভ-এর লেখক রাসকিন বন্ড তখন ভেবেছিলেন, প্রতিবেশী সেই মেয়েটি তাঁর প্রতি কিছুটা দুর্বল হবে। কিন্তু ভাগ্যের কী নির্মম পরিহাস, তাঁর কাছে মেয়েটি আবদার করল, তাকে ইংরেজি ব্যাকরণ ও রচনা শেখাতে হবে।

এ সময়ই এই লেখকের মনে পড়ে বিখ্যাত কবি ডরোথি পার্কারের একটি লাইন, ‘চশমা পরা ছেলেরা মেয়েদের কাছে পাত্তা পায় কদাচিৎ।’

আদতে তখন রাসকিন বন্ড লেখালেখি নিয়ে এতটাই ব্যস্ত থাকতেন যে নিজের চেহারা বা পোশাকের দিকে তেমন খেয়াল ছিল না। তাঁর ওয়ার্ডরোবে থাকত এক জোড়া ট্রাউজার ও তিনটি শার্ট। তাঁর মতে, মেয়েরা তাঁর মতো ছেলেদের পছন্দ না-ও করতে পারে। সেই ভয়েই কখনোই মেয়েদের কাছে ঘেঁষতেন না। এ ক্ষেত্রে এই লেখকের মা–বাবার সম্পর্কও প্রভাবিত করেছিল তাঁকে। রাসকিন বন্ডের মা–বাবার সম্পর্ক মোটেই ভালো ছিল না এবং এটি টিকেছিল মাত্র সাত কি আট বছর।

বিয়ে না করার ক্ষেত্রে এসব কারণের কথা অবলীলায়ই উল্লেখ করেছেন এই লেখক। মূলত মা–বাবার তিক্ত সম্পর্ক দেখে দেখে বড় হয়েছেন। তাই বোধ হয় বিয়ে করার আর সাহস পাননি।

সূত্র: ইকোনমিকটাইমস ডট ইন্ডিয়াটাইমস ডটকম।

গ্রন্থনা: হুমায়ূন শফিক