বিজ্ঞাপন

পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে রোজিনা ইসলাম তথা সংবাদমাধ্যমের ওপরে নেমে আসা এই অপ্রত্যাশিত ও অনাকাঙ্ক্ষিত আঘাতের ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে এবং প্রতিবিধান দাবি করে দেশে-বিদেশে বিভিন্ন মহল যে প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করছে, স্বাধীন সাংবাদিকতার প্রতি সংহতি জানাচ্ছে, তা আমাদের প্রেরণা ও সাহস জোগাচ্ছে।

সম্পাদক পরিষদ, এডিটরস গিল্ড, জাতীয় প্রেসক্লাব, সাংবাদিক ইউনিয়ন, রিপোর্টার্স ইউনিটি, বাংলাদেশ সেক্রেটারিয়েট রিপোর্টার্স ফোরামসহ সাংবাদিকদের বিভিন্ন সংগঠন, গণমাধ্যমকর্মী, বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও নেতা, নাগরিক ও সামাজিক সংগঠন, মানবাধিকার সংগঠন, পেশাজীবী সংগঠন, বুদ্ধিজীবী ও নাগরিক সমাজ, মানবাধিকারকর্মী, শিল্পী-সাহিত্যিক-সংস্কৃতিকর্মী এবং সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সাধারণ নাগরিকেরা স্বাধীন সাংবাদিকতার পাশে দাঁড়িয়েছেন; সোচ্চার হয়েছেন ন্যায় প্রতিষ্ঠায়, অন্যায়ের প্রতিবাদে। তাঁদের সবার প্রতি প্রথম আলো পরিবারের কৃতজ্ঞতা।

কমিটি টু প্রটেক্ট জার্নালিস্টস (সিপিজে), অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল, গ্লোবাল ইনভেস্টিগেটিভ জার্নালিজম নেটওয়ার্ক (জিআইজেএন), পিইএন বাংলাদেশ ও সাউথ এশিয়ান উইমেন ইন মিডিয়াসহ বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে বিভিন্ন সংগঠন ঘটনার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে এবং রোজিনা ইসলামের মুক্তি চেয়ে বিবৃতি দিয়েছে।

গণতান্ত্রিক বাংলাদেশে গণমাধ্যমের স্বাধীনতা এবং মুক্ত সাংবাদিকতা সুপ্রতিষ্ঠিত করতে সম্মিলিত ও ব্যক্তিগত এসব সক্রিয় ও সোচ্চার ভূমিকা আমাদের জন্য প্রেরণাদায়ক।

প্রথম আলো আইনের শাসনে বিশ্বাস করে। আদালতের মাধ্যমে রোজিনা ইসলাম ন্যায়বিচার পাবেন বলে আমরা বিশ্বাস করি। রোজিনা ইসলাম এবং তাঁর পরিবারের পাশে প্রথম আলো সব সময়ই থাকবে। ন্যায় প্রতিষ্ঠা এবং অন্যায়ের প্রতিবিধানে প্রথম আলো তার কর্তব্য ও ভূমিকা থেকে বিরত হবে না।

আমরা রোজিনা ইসলামের বিরুদ্ধে দায়ের করা মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার, রোজিনার নিঃশর্ত মুক্তি এবং পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে তাঁকে হেনস্তাকারীদের বিচার ও শাস্তি দাবি করছি।

মতামত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন