বুধবার প্রথম আলোর ৬ নম্বর পাতায় প্রকাশিত এক সচিত্র প্রতিবেদনে দেখা যাচ্ছে, ঢাকা–টাঙ্গাইল মহাসড়কের পাশে বর্জ্য পদার্থের সারি সারি স্তূপ পাহাড়ের আকার ধারণ করেছে। জায়গাটি গাজীপুর সিটি করপোরেশনের আওতাভুক্ত এবং সেখানে ওই ময়লা–আবর্জনার পাহাড়গুলো তৈরি করেছে তারাই। ছবিতে শুধু আবর্জনার স্তূপ দেখা যাচ্ছে, সেখান থেকে যে পচা দুর্গন্ধ আশপাশের বাতাসে ছড়িয়ে পড়ছে, তা ভুক্তভোগী ছাড়া কারও পক্ষে টের পাওয়া সম্ভব নয়।

রাজধানী ঢাকার অদূরে গাজীপুর একটি ঘনবসতিপূর্ণ বড় জনপদ। গাজীপুর সিটি করপোরেশনের আয়তন প্রায় ৩২৯ বর্গকিলোমিটার এবং লোকসংখ্যা প্রায় ৩৫ লাখ। এই বিপুলসংখ্যক মানুষের গৃহস্থালির বর্জ্য আবর্জনা ছাড়াও প্রায় দুই হাজার কলকারখানার বর্জ্য সুষ্ঠুভাবে নিষ্কাশনের কোনো ব্যবস্থা নেই। সিটি করপোরেশন বিভিন্ন ওয়ার্ড থেকে বর্জ্য সংগ্রহ করে কড্ডা নামের এলাকায় ঢাকা–টাঙ্গাইল মহাসড়কের পাশে ফেলে রাখে। সেখানে পচনশীল বর্জ্য পদার্থগুলো পচে–গলে উৎকট দুর্গন্ধ সৃষ্টি করে এবং তা বাতাসে ছড়িয়ে পরিবেশ দূষিত করে। গৃহস্থালি বর্জ্যের সঙ্গে কলকারখানার বর্জ্যও একই স্থানে স্তূপীকৃত করা হয়। আরও উদ্বেগের বিষয় হলো গাজীপুর পৌর এলাকার মধ্যে যেসব হাসপাতাল, ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার আছে, সেগুলোর মেডিকেল বর্জ্য নিষ্কাশনের কোনো সুষ্ঠু ও পরিবেশসম্মত ব্যবস্থা নেই। মেডিকেল বর্জ্য থেকে জনসাধারণের গুরুতর স্বাস্থ্যগত ঝুঁকি সৃষ্টি হতে পারে এবং উন্মুক্ত স্থানে মেডিকেল বর্জ্য ফেলে রাখার ফলে নানা ধরনের সংক্রামক রোগব্যাধি ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা দেখা দেয়।

বিজ্ঞাপন

গাজীপুর সিটি করপোরেশন এলাকায় প্রতিদিন গড়ে প্রায় ৪ হাজার মেট্রিক টন বর্জ্য পদার্থ উৎপন্ন হয়। সিটি করপোরেশন সেগুলো ২০ থেকে ২২টি জায়গায় খোলা আকাশের নিচে স্তূপীকৃত করে। কোনো কোনো বর্জ্যের স্তূপ ১৬ থেকে ১৭ ফুট উঁচু হয়ে উঠেছে। এভাবে প্রাকৃতিক পরিবেশের যে দূষণ ঘটছে এবং তার ফলে মানুষের স্বাস্থ্যগত ঝুঁকি সৃষ্টি হচ্ছে, তা নিবারণের জন্য কার্যত কোনো কর্তৃপক্ষ নেই। পরিবেশ অধিদপ্তরের গাজীপুর কার্যালয় থেকে প্রথম আলোকে বলা হয়েছে, তারা সড়কের পাশে বর্জ্য ফেলতে নিষেধ করে সিটি করপোরেশনকে চিঠি দিয়েছে। কিন্তু সিটি করপোরেশন তাতে কোনো ভ্রুক্ষেপ করছে না। গাজীপুর সিটি করপোরেশনের প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা বলেছেন, আর কোনো জায়গা নেই বলে এভাবে সড়কের পাশে বর্জ্য ফেলা হচ্ছে। তবে তাঁরা নতুন জায়গা খুঁজছেন।

শুধু গাজীপুর সিটি করপোরেশন নয়, দেশের কোনো জেলা শহরেই বর্জ্য ব্যবস্থাপনার সুষ্ঠু ও পরিবেশসম্মত ব্যবস্থা নেই। কিন্তু এভাবে খোলা আকাশের নিচে বর্জ্য ফেলে রাখা আর চলতে পারে না। এসব বর্জ্যের সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনা নিশ্চিত করার উদ্যোগ নেওয়া জরুরি।

মন্তব্য করুন