বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

একইভাবে রংপুরের বদরগঞ্জ উপজেলার কুতুবপুর ইউনিয়নের নাগেরহাট এলাকায় বিধিবহির্ভূতভাবে সবুজ ধানখেতের মধ্যে গড়ে তোলা হচ্ছে ইটভাটা। এই ভাটা বন্ধের দাবিতে এলাকাবাসী আন্দোলন করছেন। তবু নির্মাণকাজ চলছে বলে কৃষকদের অভিযোগ। তাঁদের আশঙ্কা, ভাটায় ইট পোড়ানো শুরু করলে আশপাশের কৃষিজমিতে ধান, পাটসহ অন্য ফসলের ফলনে বিপর্যয় ঘটবে। এ ছাড়া নির্মাণাধীন ভাটার পাশে রয়েছে বিশাল আমবাগান। নির্মাণাধীন ভাটার মালিক বলছেন, ইটভাটা নির্মাণের অনুমোদন নিতে আবেদন করেছেন। আবার ঔদ্ধত্য নিয়ে এ–ও বলছেন, বিধি মেনে কোথাও কোনো ইটভাটা নির্মাণ করা হয়নি।

অন্যদিকে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা বলছেন, তিনি নাকি নতুন ইটভাটা নির্মাণে কোনো ছাড়পত্র দেননি। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বলছেন, নতুন করে কৃষিজমিতে ইটভাটা নির্মাণের বিষয়ে তাঁর জানা নেই। কেউ লিখিত অভিযোগ দিলে বিষয়টি দেখবেন। তার মানে, কেউ অভিযোগ না দিলে প্রশাসনের কিছু করার নেই? ছাড়পত্র না নিয়েই এমন একটি অবৈধ কাজ হচ্ছে, সেটি তাঁরা বসে বসে দেখবেন? একটা ইটভাটার মালিকের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়ার সামর্থ্য তাঁরা রাখেন না?

সম্পাদকীয় থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন