হাছান মাহমুদ বলেন, ‘আওয়ামী লীগের ত্যাগী নেতা জিতেন গুহের ওপর হামলার ঘটনা অত্যন্ত নিন্দনীয়, ন্যক্কারজনক এবং দলের নাম ভাঙিয়ে যারা দলের পরীক্ষিত নেতাদের নিগৃহীত করে, এমন দুর্বৃত্তদের জায়গা আওয়ামী লীগে নেই।’

জিতেন গুহকে আওয়ামী লীগের একজন পরীক্ষিত ও ত্যাগী নেতা হিসেবে উল্লেখ করে হাছান মাহমুদ বলেন, ‘তিনি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ছিলেন। ছাত্রলীগ থেকে শুরু করে অনেক দীর্ঘ প্রক্রিয়ার মাধ্যমে আজকের পর্যায়ে এসেছেন। তাঁর ওপর যে হামলা হয়েছে, সেটি শুধু নিন্দনীয়ই নয়, এটি জঘন্য। যারা হামলা করেছে, তারা দল থেকে বহিষ্কৃত।’

আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, ‘পটিয়ার হাইদগাঁও ইউনিয়নের যে জসিম চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে হামলা হয়েছে, তাঁকে দল থেকে আগেই বহিষ্কার করা হয়েছিল, ইউপি নির্বাচনে বিদ্রোহী প্রার্থী হওয়ার কারণে। তাঁকে ইতিমধ্যে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আশা করছি অন্য আসামিরাও শিগগির গ্রেপ্তার হবে।’

মারধরের ঘটনার সুষ্ঠু বিচার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির প্রতিশ্রুতি দিয়ে মন্ত্রী বলেন, চেয়ারম্যান বি এম জসিমকে আগেই বহিষ্কার করা হয়েছে। ইতিমধ্যে থানা আওয়ামী লীগ সিদ্ধান্ত নিয়েছে, তাঁকে যেন আজীবনের জন্য বহিষ্কার করা হয়।

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন