default-image

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, আন্তর্জাতিক বাজারে করোনার টিকা আসামাত্র বাংলাদেশের জনগণ যাতে তা সহজে পায়, সে ব্যাপারে সরকার সব প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে।

আজ শুক্রবার সকালে রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন ওবায়দুল কাদের। তিনি তাঁর সরকারি বাসভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এই অনুষ্ঠানে যুক্ত হন। করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে সম্মুখযোদ্ধা হিসেবে কর্মরত চিকিৎসকদের মধ্যে উন্নতমানের মাস্ক বিতরণের এই অনুষ্ঠানের যৌথ উদ্যোক্তা দলটির ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ এবং স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যাবিষয়ক উপকমিটি।

সড়ক পরিবহনমন্ত্রী বলেন, ভ্যাকসিনপ্রাপ্তি সহজ এবং দ্রুত সময়ের মধ্যে তা জনগণের কাছে পৌঁছে দিতে সরকারি-বেসরকারিভাবে সমন্বিত উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। আন্তর্জাতিক বাজারে ভ্যাকসিন আসামাত্রই দেশের জনগণ যাতে তা সহজে পায়, সে ব্যাপারে সরকার প্রস্তুতি নিয়েছে।

আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীকে জনগণের মধ্যে করোনা–সম্পর্কিত সচেতনতামূলক প্রচার চালাতে নির্দেশ দিয়েছেন ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ‘করোনার গতি-প্রকৃতি কোন দিকে যায়, বলা মুশকিল। তবু সরকার যথাযথ পদক্ষেপ নিয়ে রেখেছে। আপনারা জনগণের মধ্যে সচেতনমূলক ক্যাম্পেইন পরিচালনা করুন।’

বিজ্ঞাপন

সেতুমন্ত্রী বলেন, একটি অশুভ মহল বৈশ্বিক মহামারির এই মানবিক সংকটকে পুঁজি না করলে পরিস্থিতি মোকাবিলা আরও সহজতর হতো। জনগণের জানমালের ক্ষয়ক্ষতি অনেকটা কম হতো। জনগণকে এই অশুভ শক্তির বিরুদ্ধে সতর্ক থাকতে হবে। তাদের বিরুদ্ধে দুর্বার প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে। সরকার দুর্নীতির বিরুদ্ধে ‘জিরো টলারেন্স’ নীতি বাস্তবায়নের কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে।

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সম্প্রতি রাজধানীর তিনটি বস্তিতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনাকে রহস্যজনক বলে মন্তব্য করেছেন। সে প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ঘটনাটি রহস্যজনক তো বটেই। তবে এই রহস্যের পেছনে কারা আছে, সেটা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, এই ঘটনা স্বাভাবিক, নাকি নাশকতা এবং এর সঙ্গে যারাই জড়িত, তাদের কাউকে রেহাই দেওয়া হবে না। বিএনপি নিজেরা আগুন–সন্ত্রাস করে সরকারের ওপর দোষ চাপায়। কাজেই অগ্নিসংযোগের ঘটনাও তারা যত দোষ নন্দ ঘোষের ওপর চাপানোর পুরোনো অভ্যাসের পুনরাবৃত্তি ঘটিয়েছে।
অনুষ্ঠানে ধানমন্ডি প্রান্তে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মতিয়া চৌধুরী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যাবিষয়ক সম্পাদক রোকেয়া সুলতানা, শিক্ষা ও মানবসম্পদ সম্পাদক সামছুন্নাহার চাঁপা ও উপদপ্তর সম্পাদক সায়েম খান।

মন্তব্য করুন