বিজ্ঞাপন

পুলিশের পাহারায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত বৃহস্পতিবার মারা যান ইকবাল হোসেন।‌ তিনি নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলা হেফাজতে ইসলামের সহসভাপতি ও খেলাফত মজলিসের উপজেলার সভাপতি ছিলেন। গত ৩ এপ্রিল সোনারগাঁয়ে হেফাজতে ইসলামের বিলুপ্ত কমিটির যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হকের রিসোর্ট–কাণ্ডের পর পুলিশের ওপর হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনায় করা ছয়টি মামলার আসামি ছিলেন ইকবাল হোসেন।

বিবৃতিতে মির্জা ফখরুল বলেন, কারাবন্দী অবস্থায় মৃত্যুর ঘটনা অত্যন্ত ভয়ংকর ও মানবাধিকারের চরম লঙ্ঘন। এর আগেও বিএনপির সাবেক সহসাংগঠনিক সম্পাদক নাসির উদ্দিন আহমেদ, লেখক মোস্তাক আহমেদসহ অনেক ভিন্নমতাবলম্বী মানুষের কারাগারে আটক থাকা অবস্থায় রহস্যজনকভাবে মৃত্যু ঘটেছে।

এ ধরনের ভয়ানক ঘটনা ঘটতে থাকলেও সরকারের তরফ থেকে বিশ্বাসযোগ্য ও গ্রহণযোগ্য কোনো তদন্ত বা সন্তোষজনক কোনো বক্তব্য নেই বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

ইকবাল হোসেনের মৃত্যুতে গভীর উদ্বেগ ও শোক প্রকাশ করে মির্জা ফখরুল মৃত্যুর বিষয়ে বিচার বিভাগীয় তদন্ত দাবি করেন।

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন