default-image

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার দ্বিতীয় দফার করোনার পরীক্ষার ফল পজিটিভ এসেছে।‌ তবে তিনি শারীরিক ও মানসিকভাবে সুস্থ আছেন। এমনটাই জানিয়েছেন তাঁর চিকিৎসার জন্য গঠিত মেডিকেল টিমের প্রধান অধ্যাপক এফ এম সিদ্দিকী।


খালেদা জিয়ার গুলশানের বাসভবন ‘ফিরোজা’ থেকে বেরিয়ে আজ শনিবার দিবাগত রাত পৌনে একটার দিকে সাংবাদিকদের এ কথা জানান এফ এম সিদ্দিকী।


এফ এম সিদ্দিকী বলেন, ‘ওনার (খালেদা) কোভিডের যে টেস্ট আজ আমরা করেছিলাম, সেটার ফল পজিটিভ এসেছে। তবে আমরা মনে করছি ,আগামী পাঁচ ছয় দিনের মধ্যে কোভিড নেগেটিভ হয়ে যাবেন।’ তিনি বলেন, ‘এই বাসায় যারা ছিলেন, আমরা সবারই পরীক্ষা করেছি। ১৪ জনের মধ্যে ম্যাডামসহ (খালেদা) চারজনের পজিটিভ এসেছে।‌ বাকিদের নেগেটিভ। সবাই শারীরিক এবং মানসিকভাবে সুস্থ আছেন।’

বিজ্ঞাপন


এফ এম সিদ্দিকী বলেন, ‘ম্যাডাম (খালেদা) ও অন্যান্যদের দেখে বোঝার উপায় নেই যে তাদের জটিলতা ছিল। তাঁকে (খালেদা) আমরা নিবিড় পর্যবেক্ষণে রেখেছি। দ্বিতীয় সপ্তাহ পার হয়ে গেছে। উনি এখন ভালো আছেন। ওনার অবস্থা স্থিতিশীল।’ তিনি বলেন, ‘১৭তম দিন পার হয়ে ১৮ তম দিনে প্রবেশ করেছি।‌ সেই হিসেবে কোভিড জনিত বিপজ্জনক সময়টা উনি (খালেদা) পার হয়ে গেছেন।‌ কোভিড রোগীদের যে সকল বিপদ থাকে আমরা মনে করছি তিনি আশঙ্কামুক্ত।’


খালেদা জিয়ার এই চিকিৎসক বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাসায় আসার পর এক বছর তিনি কোয়ারেন্টিনের মতোই ছিলেন। এ সময় সংক্রমণের ভয় থাকায় কোনো পরীক্ষা করতে পারিনি। কোভিড রিলেটেড নানা পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর মনে হয়েছে, তাঁর শারীরিক অন্যান্য পরীক্ষা নিরীক্ষা করা দরকার। আগামী কয়েক দিনের মধ্যে যে পরীক্ষাগুলো আগে আমরা করতে পারিনি সেগুলো আবার করব।’

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন