রোববার রাত নয়টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাজেয় বাংলার সামনে কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক করিম প্রধান ও বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রদলের জ্যেষ্ঠ যুগ্ম আহ্বায়ক আকতার হোসেনের নেতৃত্বে এই কর্মসূচি পালন করা হয়। এ সময় ডিএমপি কমিশনারকে ‘দায়িত্বশীল আচরণ’ করার আহ্বান জানান ছাত্রদলের এই নেতারা।

এর আগে শনিবার রাজধানীর রাজারবাগ পুলিশ মিলনায়তনে পুলিশ সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশন আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে ডিএমপি কমিশনার বলেন, ‘একটি পার্টির খুব সিনিয়র এক নেতা বলা শুরু করেছেন, তাঁদের নেত্রী নাকি এক নম্বর মুক্তিযোদ্ধা। এর চেয়ে হাস্যকর...। যাঁকে তাঁর স্বামী পরিত্যক্ত করে বলেছিলেন, পাকিস্তানের ওখানে কী করছ...। আর এখন সে নাকি বড় মুক্তিযোদ্ধা। আর না বলি।’

কুশপুত্তলিকা দাহ করার পর ছাত্রদল নেতা করিম প্রধান বলেন, ‘ডিএমপি কমিশনারের বক্তব্যে জাতি হতাশ। তাঁর কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য প্রত্যাহার এবং তাঁকে দায়িত্বশীল আচরণ করার আহ্বান জানাই।’

ডিএমপি কমিশনারের বক্তব্য ‘ঔদ্ধত্যপূর্ণ, কুরুচিপূর্ণ ও অদায়িত্বশীল’ বলে উল্লেখ করেন বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রদলের জ্যেষ্ঠ যুগ্ম আহ্বায়ক আকতার হোসেন। তিনি বলেন, ‘অচিরেই দেশনেত্রী খালেদা জিয়াকে নিয়ে দেওয়া বক্তব্য প্রত্যাহার করে তাঁকে (ডিএমপি কমিশনার) জাতির কাছে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি।’

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন