default-image

দীর্ঘদিন ঝুলে থাকা তিস্তা নদীর পানি বণ্টন চুক্তি ছাড়া ভারত সীমান্তে ফেনী নদীতে দুই দেশের মধ্যে সংযোগকারী সেতু খুলে দেওয়াকে ‘মহাভুল’ আখ্যায়িত করেছেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরের আমন্ত্রণ প্রত্যাহার দাবিতে আজ বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় জাফরুল্লাহ চৌধুরী এ কথা বলেন।

‘আধিপত্য প্রতিরোধ আন্দোলন’ নামের একটি সংগঠন আয়োজিত সভায় জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, আপনি একটি মহাভুল করেছেন। ফেনী নদীর ওপর ব্রিজটি দিয়ে খুব ভুল কাজ করেছেন। আপনি বলতে পারতেন, আমার তিস্তা ইস্যুকে সমাধান করেন। আমার অন্য পাওনাগুলো আছে, সেগুলো করেন।’

বিজ্ঞাপন

২০১১ সালে তিস্তার পানি বণ্টন চুক্তি হওয়ার কথা থাকলেও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আপত্তিতে শেষ মুহূর্তে তা আটকে যায়। এরপর ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার বিভিন্ন সময় এই চুক্তি স্বাক্ষরের আশ্বাস দিয়ে এলেও তা আলোর মুখ দেখেনি। এর মধ্যে গতকাল মঙ্গলবার বাংলাদেশ ও ভারতের সীমান্তে ফেনী নদীর ওপর দুই দেশের মধ্যে সংযোগকারী সেতুর উদ্বোধন করা হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী ফেনী নদীতে সেতু খুলে দেওয়ার আগে তিস্তা সংকটের সমাধান দাবি করতে পারতেন বলে মন্তব্য করেন জাফরুল্লাহ চৌধুরী।

নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরে আপত্তি জানিয়ে জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ‘আমরা ভারতীয়দের বিরুদ্ধে না। কিন্তু ভারতের প্রধানমন্ত্রী, তাঁর সাম্প্রদায়িক মনোভাবের পরিবর্তন না হলে সোচ্চারভাবে বলি, মোদি, তোমাকে চাই না।’

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে ইসলামী ঐক্যজোটের সহসভাপতি শওকত আমীন, আয়োজক সংগঠনের আহ্বায়ক হারুনুর রশীদ খান ও সদস্যসচিব মো. সামছুদ্দিন বক্তব্য দেন।

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন