default-image

হেফাজতে ইসলামের আমির জুনায়েদ বাবুনগরী বলেছেন, ‘শান্তিপূর্ণ হরতাল পালিত হচ্ছে। সারা দেশের জনগণ ও আলেমরা এতে সাড়া দিয়েছেন।’ সারা দেশের মাদ্রাসায় ‘হামলা ও জুলুম’ হচ্ছে দাবি করে হেফাজত আমির তা বন্ধের জন্য সরকারের কাছে দাবি জানান।

আজ রোববার বেলা তিনটায় হাটহাজারী সদরের কাচারি সড়কে উপস্থিত সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

বাবুনগরী অভিযোগ করে বলেন, ‘গত শুক্রবার মাদ্রাসাছাত্রদের শান্তিপূর্ণ মিছিলে প্রশাসন, পুলিশ বাহিনী গুলি করে হাটহাজারীর চারজনকে শহীদ করেছে। আহত হয়েছেন অনেক। সারা দেশে নিহত হয়েছেন এ পর্যন্ত ১৬ জন। এটা মামুলি কথা নয়। এ জন্য হরতালের ডাক দিয়েছি।’

বিজ্ঞাপন

বাবুনগরী আরও অভিযোগ করেন, আজকের হরতালে বিভিন্ন জায়গায় সরকারি বাহিনী হামলা ও গুলি করেছে। তিনি সরকারের কাছে অবিলম্বে হামলা বন্ধ, আহত ব্যক্তিদের চিকিৎসা ও গ্রেপ্তার ব্যক্তিদের মুক্তি দেওয়ার দাবি জানান। তা না হলে হেফাজত কঠোর কর্মসূচি দিতে বাধ্য থাকবে বলেন তিনি।

হরতালের পর নতুন কোনো কর্মসূচি আছে কি না এবং হাটহাজারী-খাগড়াছড়ি সড়কে দেয়াল বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘হরতালের পর যা হওয়ার হবে।’ গতকাল শনিবার রাতে হাটহাজারী-খাগড়াছড়ি সড়কে নতুন করে দুটি স্থান খুঁড়ে ফেলা হয়েছে। এ ছাড়া সড়কের ওপর ইটের স্তূপ দিয়ে তৈরি দেয়াল এখনো রয়েছে। এতে গত শুক্রবার বেলা আড়াইটা থেকে বন্ধ রয়েছে হাটহাজারী-খাগড়াছড়ি সড়ক।

গত শুক্রবার হাটহাজারী থানায় হামলা প্রসঙ্গে প্রশাসন বলেছে ছাত্ররা ইট ছুড়েছে। এ প্রসঙ্গে বাবুনগরী বলেন, ছাত্ররা হামলা করেছে এমন কোনো প্রমাণ নেই। বহিরাগতরাও হতে পারে।

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন