বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

রেজা কিবরিয়া বলেন, অবাক লাগে একটি দলের উত্থান-পতন দেখে। ১৯৯৬ সাল পর্যন্ত আওয়ামী লীগ গণমানুষের অধিকার আদায়ের দল ছিল। পরে দলটি পথ হারিয়ে ফেলেছে। বর্তমান নেতৃত্বের জন্য দলটি এখন সর্বস্তরের মানুষের ঘৃণিত একটি দল। যদি শান্তিপূর্ণ সুষ্ঠু নির্বাচন হয়, তবে জনগণের ‘রাগের চোটে’ এই দল বিলুপ্ত হয়ে যাবে। বাংলাদেশে আওয়ামী লীগ বলে যে একটি দল আছে, মানুষ ভুলে যাবে।

সমাবেশে দলের সদস্যসচিব নুরুল হক বলেন, বিএনপির করুণ পরিণতির জন্য বিএনপিও কিছুটা দায়ী। ২০০৭ সালে তত্ত্বাবধায়ক সরকারব্যবস্থা নিয়ে ছলচাতুরী না করলে হয়তো ওয়ান ইলেভেন কখনো আসত না। তিনি বলেন, বর্তমান সরকার যদি শান্তিপূর্ণভাবে ক্ষমতা হস্তান্তরের পথে না আসে, তাহলে তাদেরও করুণ পরিণতি বরণ করতে হবে।

নুরুল হক অভিযোগ করেন, আওয়ামী লীগ স্থানীয় নির্বাচনে দলীয় প্রতীক দিয়ে গ্রামে-গঞ্জে রাজনৈতিক প্রতিহিংসা তৈরি করেছে। এ নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন ২৫০ জন। ৩০ জন প্রাণ হারিয়েছেন। তিনি বলেন, প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) নুরুল হুদাকে বিচারের মুখোমুখি করা হবে গণতন্ত্র হত্যা করার জন্য।

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন