default-image

যখন নির্বাচনে যাওয়া উচিত নয়, তখন নির্বাচনে যায় বিএনপি আর যখন যাওয়া উচিত, তখন যায় না বলে মন্তব্য করেছেন দলটির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদ।
আজ সোমবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন বলেন, ‘যেই সংসদে যাওয়া উচিত নয়, সেই সংসদে গিয়ে আমরা বসে থাকি। যার জন্য আজকে ৪০০ ভোট দেয়। সিরাজগঞ্জে ওদের প্রার্থী (আওয়ামী লীগ) পেয়েছে ১ লাখ ৮৮ হাজার ভোট আর আমাদের প্রার্থী পেয়েছে ৪০০ ভোট। বিএনপির এজেন্টই তো হাজারের বেশি। আমাদের কোনো এজেন্ট ভোটকেন্দ্রে যেতে পারেন না, কোনো ভোটার ভোট কেন্দ্রে যেতে পারেন না, এমনকি আওয়ামী লীগের সমর্থকেরা ভোটকেন্দ্রে যেতে পারেন না। এই হলো বাংলাদেশের গণতন্ত্র।’

বিজ্ঞাপন

‘ঐতিহাসিক ৭ নভেম্বর জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবসের তাৎপর্য এবং দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া গৃহবন্দী থেকে মুক্তির করণীয়’ শীর্ষক এই আলোচনা সভার আয়োজন করে জিয়াউর রহমান সমাজকল্যাণ পরিষদ। সভায় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান হাফিজ উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘অশনিসংকেত আমি দেখতে পাচ্ছি, বিএনপিকে এখন ডাক দিলে রাস্তায় নামাতে পারে না। এত শক্তিশালী ছাত্রদল ছিল, তাদেরকে রাস্তায় নামাতে পারে না। কেন নামাতে পারে না, এটা আমার জানা নেই, আমি দলের কোনো বিরাট নেতা না, আমি জানি না। এটা গবেষণার বিষয়।’
হাফিজ উদ্দিন আহমেদ পানিসম্পদ মন্ত্রী থাকার সময় ভারতের সঙ্গে যৌথ নদী কমিশনের তিনটি বৈঠকে একবিন্দুও ছাড় না দেওয়ার কথা তুলে ধরে বলেন, ‘দুঃখ লাগে, এই বিএনপি এখন ভারতের বিরুদ্ধে কথা বলতে পারে না। তারা মনে করে ভারত তাদেরকে ক্ষমতায় বসিয়ে দেবে। কত বড় অধঃপতন হয়েছে আমাদের রাজনীতির।’
সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন সাবেক প্রতিমন্ত্রী ও বিএনপির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক এহসানুল হক, লেবার পার্টির সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান প্রমুখ।

মন্তব্য পড়ুন 0