default-image

দেশের শান্তি-শৃঙ্খলা ও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির বিরুদ্ধে যেকোনো ষড়যন্ত্র সম্পর্কে দেশবাসীকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়েছেন জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের মহাসচিব নূর হোসাইন কাসেমী। তিনি বলেন, ‘আমরা লক্ষ্য করছি, রাসুল (সা.)-এর মর্যাদা রক্ষার ইমানি আন্দোলনকে ঢাল হিসেবে ব্যবহার করে দেশে সাম্প্রদায়িক গোলযোগ সৃষ্টির ষড়যন্ত্র চলছে।’

আজ বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় নায়েবে আমির নূর হোসাইন কাসেমী লালমনিরহাট ও কুমিল্লার ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে গভীর উদ্বেগ জানিয়ে এ কথা বলেন।

ইসলাম ও মানবাধিকারবিরোধী অপতৎপরতার বিরুদ্ধে সরকারকে শক্ত অবস্থান নিতে বলেন নূর হোসাইন কাসেমী। তিনি বলেন, কাদের ইন্ধনে এসব হচ্ছে, কারা গুটিবাজি করছে, সুনিপুণ তদন্তের মাধ্যমে সবকিছু উদ্‌ঘাটন করে দায়ীদের কঠোর শাস্তি দিন।

নূর হোসাইন কাসেমী বলেন, ফ্রান্সসহ বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.) সম্পর্কে কটূক্তি ও ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনের পাশাপাশি ইসলামকে ভীতিকর ও হেয় করার একটা ধারাবাহিক হীন প্রচেষ্টা চলছে। এসব যে উসকানিমূলক ও মানবাধিকারবিরোধী তৎপরতা, তা স্পষ্ট। ঘটনা পরম্পরায় এটা পরিষ্কার যে পরিকল্পিতভাবে এসব ঘটানো হচ্ছে।

বিজ্ঞাপন

নূর হোসাইন কাসেমী বলেন, ফেসবুকের যেসব আইডি থেকে দেশে ইসলাম অবমাননার ঘটনা চালানো হয়, সব সময় অভিযুক্ত ব্যক্তিদের পক্ষ থেকে দাবি করা হয় তাদের আইডি হ্যাক হয়েছে। পরে প্রশাসনের তরফ থেকেও তাদের দাবির পুনরাবৃত্তি দেখা যায়। রংপুর ও ভোলার ঘটনায় মুসলমানদের প্রাণহানি হলো। কিন্তু যাদের উসকানিতে এসব ঘটছে, এখনো তাদের চিহ্নিত করা হলো না কেন? তিনি বলেন, নাসিরনগর, রংপুর ও ভোলার ঘটনার হোতাদের যদি শাস্তি দেওয়া হতো, হয়তো লালমনিরহাট ও কুমিল্লার ঘটনার পুনরাবৃত্তি হতো না।

মন্তব্য পড়ুন 0