বিএনপির মহাসচিব বলেন, সমুদ্র থেকে গ্যাস উত্তোলনের জন্য একটা ফান্ড তৈরি করেছিল। সেখান থেকে প্রায় আড়াই হাজার কোটি টাকা নিয়ে গিয়ে এখন গ্যাস কেনার জন্য দিচ্ছে। এটাকে আরেকটা বাটপারি, ডাকাতি বলে মন্তব্য করেন ফখরুল। তিনি বলেন, একদিকে বিদ্যুৎ উৎপাদনের নাম করে হাজার হাজার কোটি টাকা পাচার করেছে, অন্যদিকে জ্বালানি হিসেবে গ্যাস আমদানি করছে। আওয়ামী লীগের ব্যবসায়ীরা এসব আমদানি করছেন।

আওয়ামী লীগের চুরি ও ডাকাতির হিসাব অসংখ্য দাবি করে বিএনপির এই শীর্ষ নেতা বলেন, যেখানে যাবেন সেখানেই চুরি। পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোয় অবকাঠামো তৈরির আগেই শিক্ষার্থী ভর্তির কাজ শুরু হয়েছে। চাঁদপুরে বিশ্ববিদ্যালয় নির্মাণে জমি কেনার নামে মন্ত্রীর ঘনিষ্ঠরা টাকা লুটপাট করতে চেয়েছে। এই চিত্র সর্বক্ষেত্রেই। চুরি, ডাকাতি, রাহাজানি—সবকিছুর সঙ্গে আওয়ামী লীগ জড়িত। সবকিছু তারা এখানে ধ্বংস করে ফেলেছে।

মির্জা ফখরুল বলেন, আওয়ামী লীগের সভানেত্রী জোরগলায় বলেছেন, কোনো বাধা দেওয়া হবে না। সভা করেন। বিরোধীর দলকে গ্রেপ্তার হয়রানি করা হবে না। অথচ ঢাকা উত্তরের বিএনপি নেতা দুলুকে চ্যাংদোলা করে পুলিশ তুলে নিয়ে গেছে। দক্ষিণে বেশ কয়েকজন নেতাকে একইভাবে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

বিএনপির মহাসচিব বলেন, তাঁরা আশা করেছিলেন, গণতান্ত্রিক দেশ পাবেন।অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি আসবে। কিন্তু সবকিছুকে এই আওয়ামী লীগ তাদের চুরি, ডাকাতি ও লোভের কারণে ধ্বংস করে দিয়েছে। কর্তৃত্ববাদী শাসন গণতন্ত্রকে ধ্বংস করে দিয়েছে। বিচার বিভাগকে ধ্বংস করে দিয়েছে। ব্যাংকিং ব্যবস্থা রসাতলে চলে গেছে।

দলের নেতা-কর্মীদের উদ্দেশে মির্জা ফখরুল বলেন, এর থেকে দেশকে টেনে তুলতে হবে। ভয়াবহ দানব সরকারের পতনের জন্য এক দফা এক দাবি নিয়ে এগিয়ে যেতে হবে। একসঙ্গে দড়ি ধরে টান দিলে শেখ হাসিনার পতন হবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির আহ্বায়ক আবদুল সালামের সভাপতিত্বে এবং ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সাধারণ সম্পাদক রফিকুল আলমের সঞ্চালনায় সমাবেশে ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির আহ্বায়ক আমান উল্লাহসহ দলের কেন্দ্রীয় ও অঙ্গসহযোগী সংগঠনের নেতারা বক্তব্য দেন।

এদিকে বিএনপির এ সমাবেশের কারণে সকাল সাড়ে নয়টা থেকে বেলা পৌনে একটা পর্যন্ত প্রেসক্লাবের সামনের সড়ক হয়ে যানচলাচল বন্ধ হয়ে যায়। সকাল থেকেই সমাবেশস্থলের আশপাশে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর বিপুলসংখ্যক সদস্য মোতায়েন করা হয়।

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন