পূর্বঘোষণা অনুযায়ী বেলা তিনটায় পুরানা পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে শোভাযাত্রা শুরুর কথা ছিল। তবে জুমার নামাজের পরপরই বিভিন্ন এলাকা থেকে মিছিল নিয়ে সেখানে হাজির হতে থাকেন দলের নেতা-কর্মীরা। পরে বেলা সাড়ে তিনটার দিকে কালভার্ট রোডে একটি পিকআপ ভ্যানে নির্মিত অস্থায়ী মঞ্চে দাঁড়িয়ে দলের নেতারা বক্তব্য দেন। বিকেল সাড়ে চারটার দিকে দলের নেতা-কর্মীরা বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করেন। শোভাযাত্রাটি কালভার্ট রোডে শুরু হয়ে ফকিরাপুল মোড়, নয়াপল্টন বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনের সড়ক, কাকরাইলের নাইটিঙ্গেল মোড়, পুরানা পল্টন মোড়, জিরো পয়েন্ট, গুলিস্তানে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনের সড়ক হয়ে গোলাপশাহ মাজার ঘুরে ফের জিরো পয়েন্ট, পুরানা পল্টন মোড় ঘুরে কাকরাইল মোড়ে এসে বিকেল সাড়ে পাঁচটার দিকে শেষ হয়। গণ অধিকার পরিষদের শোভাযাত্রাটি যখন বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে দিয়ে যাচ্ছিল, তখন সেখানে থাকা বিএনপির নেতা-কর্মীরা হাততালি দিয়ে গণ অধিকার পরিষদের নেতা-কর্মীদের স্বাগত জানান। এরপর জিরো পয়েন্ট পেরিয়ে যখন গুলিস্তানের আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনের সড়ক অতিক্রম করছিল, তখন গণ অধিকার পরিষদের নেতারা—নিশি রাতের সরকার, আর নয় দরকার; মাফিয়াদের গদিতে, আগুন জ্বালো একসাথে; এ মুহূর্তে দরকার, রেজা–নুরের সরকার ইত্যাদি স্লোগান দেন।

বিএনপির নেতা-কর্মীদের পাশাপাশি সড়কের পাশে থাকা পথচারী ও দোকানিদেরও গণ অধিকার পরিষদের নেতাদের হাততালি দিয়ে উৎসাহ দিতে দেখা গেছে।

গণ অধিকার পরিষদের নেতা-কর্মীদের এ কর্মসূচি কেন্দ্র করে মোড়ে মোড়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের উপস্থিতি দেখা গেছে। অবশ্য কর্মসূচি পালনে সহযোগিতা করায় ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন গণ অধিকার পরিষদের সদস্যসচিব নুরুল হক।

এদিকে শোভাযাত্রা শুরুর আগে আয়োজিত সংক্ষিপ্ত সমাবেশে নুরুল হক অভিযোগ করে বলেন, শতভাগ আলোর উৎসব করে দেশ অন্ধকারের দিকে নিয়ে যাচ্ছে সরকার। উন্নয়নের মহাসড়কের কথা বলে তারা দেশকে খাদের কিনারে নিয়ে যাচ্ছে। দুর্ভিক্ষের আগে এই দুর্বৃত্তদের বিদায় দিতে নেতা-কর্মীদের শপথ নেওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

এ সময় গণ অধিকার পরিষদের আহ্বায়ক রেজা কিবরিয়া বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, দুর্ভিক্ষ আসছে। আমরা দুর্ভিক্ষ আসার আগে এই সরকার থেকে মুক্তি চাই। এই সরকারের দুঃশাসন থেকে মুক্তি চাই। লুট, গুম হত্যা, মিথ্যা মামলাসহ সবকিছু থেকে মুক্তি চাই।’