ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সুবাস মল্লিক বলেন, বেলা সাড়ে ১১টার দিকে উদ্ভিদবিদ্যা বিভাগে মাহমুদুল করিমের নেতৃত্বে তাঁর অনুসারীদের ওপর হামলা হয়। এ সময় সেখানে আরমানরা ছিলেন। এই ঘটনার পর দুই পক্ষের মধ্যে লাঠিসোঁটা নিয়ে মারামারি হয়। একে অন্যের দিকে পাথর ছুড়ে মারেন। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

চকবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মনজুর কাদের মজুমদার বলেন, ছাত্রলীগের দুই পক্ষ হঠাৎ মারামারিতে জড়ায়। তারা লাঠিসোঁটা নিয়ে একে অপরের দিকে তেড়ে যায়। এতে দু–একজন সামান্য আহত হতে পারেন।

default-image

ছাত্রলীগের সভাপতি মাহমুদুল করিম বলেন, ‘সাধারণ ছাত্র যাঁরা রাজনীতি করেন, তাঁদের ক্যাম্পাসে হুমকি দিচ্ছিলেন। এর প্রতিবাদ করলে সাধারণ সম্পাদকের নেতৃত্বে হামলা হয়। এতে আমার দু–একজন আহত হন।’

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন