বাংলাদেশ জাসদের পক্ষে মতবিনিময় সভায় অংশগ্রহণ করেন দলটির সভাপতি শরীফ নুরুল আম্বিয়া ও সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হক প্রধান, স্থায়ী কমিটির সদস্য মুশতাক হোসেন, করিম সিকদার, মনজুর আহমেদসহ সংগঠনের কেন্দ্রীয় নেতারা।

মতবিনিময় সভা শেষে গণতন্ত্র মঞ্চের পক্ষে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি। সেখানে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন নাগরিক ঐক্যর সভাপতি মাহমুদুর রহমান মান্না, বিপ্লবী ওয়ার্কাস পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, ভাসানী অনুসারী পরিষদের আহ্বায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ রফিকুল ইসলাম বাবলু, রাষ্ট্র সংস্কার আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক হাসনাত কাইয়ুম, গণ অধিকার পরিষদের সদস্যসচিব নুরুল হক নূর, জেএসডির কার্যকরী সাধারণ সম্পাদক শহীদ উদ্দিন মাহমুদ স্বপন।

জোনায়েদ সাকি বলেন, ‘বাংলাদেশের বর্তমান যে পরিস্থিতি, জনজীবনের যে সংকট বিরাজমান, সে বিষয়ে করণীয় ঠিক করতে আমরা আজ বাংলাদেশ জাসদের সঙ্গে মতবিনিময় করেছি। বর্তমান সরকার ভোটাধিকার কেড়ে নিয়ে জনজীবনে এক ভয়াবহ পরিস্থিতি তৈরি করেছে, লক্ষ কোটি টাকা লুটপাট-পাচার করেছে, রিজার্ভ ফাঁকা করে দিচ্ছে। বাংলাদেশে বর্তমান যে বাস্তবতা তা থেকে আমরা উত্তরণ ঘটাতে চাই, বাংলাদেশে একটা গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠায় আমরা কাজ করে যাচ্ছি।’

২০১৮ সালের মতো নির্বাচন করতে দেওয়া হবে না উল্লেখ করে জোনায়েদ সাকি বলেন, ‘জাসদের সঙ্গে আমরা গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠার বিষয়ে কথা বলেছি। তারাও আমাদের সঙ্গে একমত হয়েছেন। ২০১৮ সালের মতো আর কোনো নির্বাচন যাতে না হয়, সে বিষয়ে তাঁরা সক্রিয় ভূমিকা রাখবেন। আমাদের মতো তাঁরাও মনে করেন, দলীয় সরকারের অধীনে বাংলাদেশে কোনো সুষ্ঠ নির্বাচন সম্ভব নয়; সুষ্ঠ নির্বাচনের জন্য নির্বাচনকালীন সরকার ও শাসনব্যবস্থার সংস্কার দরকার।’ তিনি বলেন, ক্রমাগত লুণ্ঠন, অর্থ পাচারের মাধ্যমে বর্তমান সরকার জনগণের জীবনকে যে বিপর্যয়ের দিকে ঠেলে দিয়েছে, এর বিরুদ্ধে এবং এ ধরনের বিভিন্ন ইস্যুতে জনগণের মধ্যে ঐক্য ও আন্দোলন গড়ে তুলতে গণতন্ত্র মঞ্চ ও বাংলাদেশ জাসদ সক্রিয় ভূমিকা পালন করবে।

নাজমুল হক প্রধান বলেন, ‘বাংলাদেশ জাসদ দলীয় সরকারের অধীনে কোনো নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে না, বরং দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন প্রতিহত করতে সক্রিয়ভাবে মাঠে থাকবে। বর্তমান সরকারের সীমাহীন লুটপাট-অর্থ পাচারের ফলে জনগণের যে নাভিশ্বাস উঠেছে, তার বিরুদ্ধে জনগণের মধ্যে ঐক্য ও আন্দোলন গড়ে তুলতে আমরা সক্রিয় ভূমিকা পালন করব।’