এ সময় হাসানুল হক ইনু কর্নেল তাহেরের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে বলেন, তিনি ছিলেন একজন মহান দেশপ্রেমিক ও বিপ্লবী। দুর্ভাগ্যক্রমে এখনো বিএনপি-জামাত পাকিস্তানের পক্ষে প্রক্সি যোদ্ধা হিসেবে বাংলাদেশ রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে যুদ্ধ অব্যাহত রেখেছে। কর্নেল তাহেরের চেতনাকে ধারণ করে বাংলাদেশের চিরশত্রু পাকিস্তানের পক্ষে প্রক্সি যোদ্ধাদের পরাজিত করার জন্য দলের নেতা-কর্মীদের প্রতি আহ্বান জানান ইনু।

বৃহস্পতিবার সকাল ছয়টায় রাজধানীর পল্টনে জাসদ কার্যালয়ে দলের পতাকা অর্ধনমিত ও কালো পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে ঢাকাসহ দেশের জেলা-উপজেলায় তাহের দিবসের কর্মসূচি শুরু হয়। এরপর সকাল ১০টায় বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে কর্নেল তাহেরের প্রতিকৃতিতে জাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।
আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন বাংলাদেশের সাম্যবাদী দলের (মা-লে) সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা, জাসদের সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার, জাসদের কার্যকরী সভাপতি রবিউল আলমসহ প্রমুখ।

এদিকে মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে নেত্রকোনার পূর্বধলা উপজেলার কাজলা গ্রামে শহীদ কর্নেল তাহেরের সমাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। এ সময় কর্নেল তাহেরের সহধর্মিণী লুৎফা তাহের, জাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাদিক হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ শফিকুল ইসলাম মিন্টু, ময়মনসিংহ জেলা ও মহানগর কমিটি, নেত্রকোনা জেলা কমিটির নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন