৫১ কেন্দ্রের তদন্তে কমিটি কী তথ্য পেয়েছে, তা নিয়ে কোনো মন্তব্য করেননি সিইসি।
শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়ে সিইসি বলেন, ‘একটু অপেক্ষা করেন। ৭ থেকে ১০ দিন সময় লাগবে। খণ্ডিত প্রতিবেদন পেয়েছি, পুরোটার তদন্ত প্রতিবেদন দরকার।’

আজ ফরিদপুর-২ আসনে উপনির্বাচনের পরিস্থিতি সিসিটিভির মাধ্যমে ঢাকায় বসে পর্যবেক্ষণ করছে ইসি। কোনো ধরনের অনিয়ম না থাকায় সন্তোষ প্রকাশ করেছেন কাজী হাবিবুল আউয়াল। সকাল আটটা থেকে ফরিদপুর-২ আসনের উপনির্বাচন চলছে। বিকেল চারটা পর্যন্ত ইভিএমে ভোট হবে। স্থানীয়ভাবে পর্যবেক্ষণের পাশাপাশি এ আসনের সব কেন্দ্র ও ভোটকক্ষ মিলিয়ে ১ হাজার ৫২টি সিসিটিভি ক্যামেরায় ভোট দেখছেন সিইসি ও অন্য নির্বাচন কমিশনাররা।

দুপুরে সিইসি কাজী হাবিবুল আউয়াল সাংবাদিকদের কাছে পরিবেশ নিয়ে সন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, ‘অনিয়ম একেবারেই দেখছি না। খুবই শান্তিপূর্ণভাবে ফরিদপুর উপনির্বাচন হচ্ছে।’ তবে ভোটারের উপস্থিতি তুলনামূলক কম দেখা যাচ্ছে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

সিইসি আরও বলেন, ‘যেটা আমাদের প্রত্যাশা ছিল, সিসি ক্যামেরায় দেখলাম, শান্তিপূর্ণ হচ্ছে। সিসিটিভি ক্যামেরার একটা ইতিবাচক দিক রয়েছে। সিসিটিভি ক্যামেরায় ভোট করা নতুন একটি সংযোজন। যেটা নিয়ন্ত্রণ ও ইলেকটোরাল গভরন্যান্সকে আরও বিস্তৃত করবে।’