আজ মঙ্গলবার বিকেলে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলনসহ মহিলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনের মঞ্চ প্রস্তুতি ও সাজসজ্জা পরিদর্শনে এসে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন জাহাঙ্গীর কবির।

বৈশ্বিক অর্থনৈতিক সংকটের কথা উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একটি চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করছেন। তিনি করোনা মহামারি মোকাবিলায় সফল হয়েছেন। বৈশ্বিক অর্থনৈতিক সংকট মোকাবিলায় সর্বাত্মক চেষ্টা করে যাচ্ছেন। এ পরিস্থিতিতে জনগণের মধ্যে কোনো আতঙ্ক না ছড়ানোর অনুরোধ জানান তিনি।

আগামী ১০ ডিসেম্বর বিএনপি ঢাকায় সমাবেশ করবে। একই মাসে আওয়ামী লীগের নানা কর্মসূচি আছে ঢাকায়। সংঘাতের আশঙ্কা দেখছেন কি না, তা জানতে চাইলে জাহাঙ্গীর কবির বলেন, ‘আমরা গণতন্ত্রে বিশ্বাস করি। নেত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বিরোধী দল শান্তিপূর্ণ উপায়ে যেকোনো কর্মসূচি পালন করতে পারবে। শক্তিশালী বিরোধী দলকে আমরা স্বাগত জানাই। কিন্তু ১০ ডিসেম্বরের সমাবেশকে কেন্দ্র করে তারা যেন জনগণের জানমাল ও শান্তি-শৃঙ্খলা বিঘ্নিত না করে। এমনটা করলে ঢাকাবাসীর শান্তি রক্ষার অধিকার রয়েছে।’

জাতীয় সম্মেলনকে সফল করতে ১১টি উপকমিটি গঠন করেছে আওয়ামী লীগ। এর মধ্যে মঞ্চ ও সাজসজ্জা উপকমিটির আহ্বায়ক জাহাঙ্গীর কবির। এ কমিটির সদস্যসচিব আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম। আগামী ২৪ ডিসেম্বর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। এর আগে দলটির কয়েকটি সহযোগী ও ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনের সম্মেলন একই স্থানে অনুষ্ঠিত হবে। পরিদর্শনকালে মির্জা আজমসহ সহযোগী সংগঠনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।