বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এমনিতেও বয়স ৪২ হয়ে গেছে গেইলের, এ টুর্নামেন্টের সবচেয়ে বয়সী ক্রিকেটার তিনি। এখনকার টি-টোয়েন্টি বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ওয়েস্ট ইন্ডিজও বিদায় নিয়েছে আগেই। ডোয়াইন ব্রাভো আনুষ্ঠানিকভাবে অবসরের ঘোষণা দিলেও গেইল কিছু বলেননি।

default-image

শেষ পর্যন্ত ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে এটাই শেষ ম্যাচ হলে শেষ ইনিংসটা হয়ে থাকবে গেইলের ক্যারিয়ারের সঙ্গে মানানসই। এভিন লুইসের সঙ্গে ওপেনিংয়ে এসে গেইল ৯ বলে করেছেন ১৫ রান। প্রথমে জশ হ্যাজলউডের ব্যাক অব আ লেংথ বলে লং-অন দিয়ে টেনে ছয় মেরেছেন ‘গেইল-স্টাইলে’।

পরের ওভারে কামিন্সকেও মেরেছেন ওই অঞ্চল দিয়েই। তবে এরপরের বলেই ঘটেছে বিপত্তি। বোল্ড হওয়ার পরই গেইলের হতাশার ভাব ফুটে উঠেছে স্পষ্টভাবেই। তবে আউট হয়ে ফেরার পথে হাসি দেখা গেছে টি-টোয়েন্টি ইতিহাসের অন্যতম সেরা এই ব্যাটসম্যানের মুখে।

default-image

২০০৬ সালে অকল্যান্ডে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে অভিষেক হয়েছিল গেইলের। শেষ পর্যন্ত এটিই শেষ ইনিংস হয়ে থাকলে গেইলের ক্যারিয়ারটা দাঁড়াবে এমন—৭৯ ম্যাচ, ৭৫ ইনিংস, ১৮৯৯ রান, ২৭.৯২ গড়, ১৩৭.৫০ স্ট্রাইক রেট, ১৪ ফিফটি, ২ সেঞ্চুরি, ১১৭ সর্বোচ্চ। ক্যারিয়ারে গেইল মেরেছেন ১৫৮টি চারের সঙ্গে ১২৪টি ছয়।

২০১২ ও ২০১৬ সালে শিরোপাজয়ী ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের সদস্য ছিলেন গেইল। ২০১২ সালে কলম্বোতে ফাইনাল জয়ের পর গেইলের ‘গ্যাংনাম স্টাইলের’ নাচ যেন ধরেছিল টি-টোয়েন্টিতে নতুন ক্যারিবিয়ান দাপটের সুর। চার বছর পর কলকাতায় আবারও উল্লাসে মেতেছিলেন তাঁরা।

default-image

তবে এবার অন্যতম ফেবারিট হিসেবে বিশ্বকাপে এলেও ওয়েস্ট ইন্ডিজ থেকেছে বিবর্ণ। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচেই ৫৫ রানে অলআউট হয়ে যাওয়ার পর আর ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি তারা। বাংলাদেশের বিপক্ষে জিতলেও দলটাকে দেখে দাপুটে মনে হয়নি মোটেও। সর্বশেষ শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে হেরে বিদায় নিশ্চিত হয়েছে তাদের। নিজেকে খুঁজে পাননি গেইলও। সব মিলিয়ে ৫ ম্যাচে করেছেন মোট ৪৫ রান। আজকের আগে মেরেছিলেন মাত্র ১টি ছয়।

তবে আজ ৯ বলের ইনিংসে একটু হলেও বিনোদন দিয়ে গেলেন ‘বিনোদনের ফেরিওয়ালা’। হয়তো শেষবারের মতোই।

খেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন