বিজ্ঞাপন
default-image

রামোস অবশ্য হতাশার খবর সবার আগে পেয়েছেন। গতকালই এনরিকে রামোসের সঙ্গে কথা বলে নিজের সিদ্ধান্ত জানিয়েছেন, ‘এটা পরিষ্কার জানুয়ারির পর থেকেই ঠিকভাবে খেলার অবস্থায় নেই সে। গতকাল ওর সঙ্গে কথা হয়েছে আমার। এটা খুব কঠিন ছিল। আমার খুব খারাপ লেগেছে। কারণ, সে সব সময় সর্বোচ্চটা দেয়। কিন্তু আমার মনে হয়েছে দলের জন্য এটাই সেরা সিদ্ধান্ত।’

ওদিকে রামোস নিজের হতাশা প্রকাশ করতে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমকে বেছে নিয়েছেন। টুইটার ও ইনস্টাগ্রামে নিজের হতাশাটা প্রকাশ করেছেন এভাবে, ‘আমার ক্যারিয়ারের এমন বাজে কয়েকটা মাস এবং অদ্ভুত এক মৌসুম কখনো কাটাইনি। রিয়াল মাদ্রিদ ও জাতীয় দলের জন্য শতভাগ সুস্থ হওয়ার জন্য প্রতিদিন মানসিক ও শারীরিকভাবে লড়েছি। কিন্তু যা চান, তা তো সব সময় হয় না।’

default-image

এভাবে বাদ পড়ায় কতটা খারাপ লাগছে তাঁর, সেটা লুকানোর কোনো চেষ্টা করেননি রামোস, ‘দলকে সাহায্য করতে পারছি না, স্পেনের হয়ে রক্ষণ সামলাচ্ছি না, এটা ভেবে কষ্ট হচ্ছে। কিন্তু এই ক্ষেত্রে হয়তো বিশ্রাম নিয়ে পুরো সুস্থ হওয়াটাই ভালো। তাহলে আগামী বছর আবার আগের মতো ফিরে আসতে পারব। দেশের প্রতিনিধিত্ব করতে না পারায় দুঃখ পাচ্ছি, কিন্তু আপনাকে সৎ ও অকপট হতে হবে। সব সতীর্থের জন্য শুভকামনা। আশা করছি, আমরা দারুণ একটা ইউরো কাটাব। ঘর থেকে সমর্থন দেওয়া আরেকজন ভক্ত আমি।’

খেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন