বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পুরুষদের ফাইনালের আগের সংবাদ সম্মেলনে ল্যানিংয়ের কাছ থেকে প্রেরণা নেওয়ার ব্যাপারে প্রশ্ন করা হলে ফিঞ্চ বললেন, ‘দুর্ভাগ্যজনকভাবে মেগের সঙ্গে কথা হয়নি। তবে আমরা আক্রমণাত্মক ও ভালো ক্রিকেট খেলতে চাই। এই খেলা ছোটখাটো দিক দিয়ে বদলে যেতে পারে। সে সময়ের চ্যালেঞ্জটা নিতে হবে, সেটা ফাইনাল হোক বা সিরিজের একটা ম্যাচ হোক। আমরা কাল খেলার জন্য রোমাঞ্চিত।’

default-image

টুর্নামেন্ট শুরুর আগে অস্ট্রেলিয়াকে সেভাবে ফেবারিট হিসেবে কেউ বিবেচনা করেননি, সেটা সেমিফাইনালের আগেও বলেছিলেন ফিঞ্চ। আজও মনে করিয়ে দিয়েছেন সেটা, ‘অনেকেই আমাদের হিসাব থেকে বাদ দিয়েছিল। তবে আমরা যেভাবে নিজেদের কাজটা করেছি, সেটাতে মুগ্ধ। সবার প্রস্তুতি ভালো ছিল। সবারই ম্যাচ ঘুরিয়ে দেওয়ার মতো পারফরম্যান্স ছিল। আমাদের আত্মবিশ্বাস ছিল। যেভাবে প্রস্তুতি নিয়েছি, কৌশল কাজে লেগেছে। আমরা জয়ের পরিকল্পনা নিয়েই এসেছি। তবে আমরা নিজেদের প্রত্যাশা ছাড়িয়ে যাইনি। টুর্নামেন্ট জেতার পরিষ্কার পরিকল্পনা নিয়েই এসেছি, আমাদের এখনো মনে হয় সেটা করার মতো দল আছে আমাদের।’

এবার বড় একটা সুযোগও দেখছেন ফিঞ্চ, ‘এর আগে আমাদের হাত থেকে ফসকে গেছে শিরোপা। ফাইনালে এসেছি বলে এবার সেরা সুযোগটাই আছে। এখন সেটা কাজে লাগাতে হবে। আশা করি, নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ভালো একটা ম্যাচ হবে। সেমিফাইনালের পর একদিন বিরতি নিয়েছিলাম। আজ ঐচ্ছিক অনুশীলন থাকলেও মোটামুটি সবাই এসেছিল। ছেলেরা বেশ চাঙা আছে, ফাইনালের জন্য তর সইছে না কারও। তবে আমরা এর আগে না জেতা নিয়ে নিজেদের মধ্যে কথা বলিনি।’

টুর্নামেন্টে উড়তে থাকা পাকিস্তানকে থামিয়ে ফাইনালে এসেছে অস্ট্রেলিয়া। অন্যদিকে নিউজিল্যান্ড হারিয়েছে ফেবারিট ইংল্যান্ডকে। ফাইনালে এ দুই দলের আসা ‘অপ্রত্যাশিত’ কি না, এমন কথাকে ফিঞ্চ উড়িয়েই দিয়েছেন, ‘মোটেও না। আমরা শিরোপা জেতার পরিষ্কার পরিকল্পনা নিয়েই এসেছি। আমাদের সেই সামর্থ্য আছে। আর নিউজিল্যান্ড তো সব সংস্করণেরই ফাইনাল খেলছে সাম্প্রতিক সময়ে। আমি বিস্মিত নই মোটেও।’

default-image

দুবাইয়ে তাসমানপাড়ের দুই প্রতিবেশীর লড়াইটাও রোমাঞ্চকর হবে বলেই আশা অস্ট্রেলিয়া অধিনায়কের,‘সব সংস্করণ মিলিয়েই নিউজিল্যান্ড বেশ ভালো একটা দল। তাদের কখনোই হালকাভাবে নেওয়া উচিত না। বাইরের লোকে হয়তো এমনটা করে। তবে আমরা করি না। তাদের শক্তি আছে, অভিজ্ঞতা আছে, মান আছে। আর আমাদের দুই দলেরই ইতিহাস আছে, সেটি শুধু ক্রিকেটে নয়, “ডাউন-আন্ডার” প্রতিবেশী হিসেবেও। দারুণ সম্পর্ক একটা, এখন নিয়মিতই খেলি। ভালো লড়াই হয়, সেটি যে কোনো সংস্করণেই। আমরা রোমাঞ্চিত। ওরা দারুণ দল, দুর্দান্ত কেইন উইলিয়ামসন অধিনায়ক। টুর্নামেন্টের এ পর্যায়ে দেখা হয়ে যাওয়াটা রোমাঞ্চকর।’

খেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন