ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে টেস্ট সিরিজ শুরুর আগেই মেরুদণ্ডে চোট পেয়েছিলেন ব্যাটসম্যান ইয়াসির আলী। অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনকে শুরুতে দলে রাখা হলেও ম্যাচ ফিটনেস ছিল না বলে পাঠানো হয়নি শেষ পর্যন্ত।

default-image

এরপর জিম্বাবুয়ে সফরের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে আঙুলে চিড় ধরা পড়ে প্রথম দুই ম্যাচে অধিনায়কত্ব করা নুরুল হাসানের। এরপর দেশে ফিরে আসেন তিনি। আঙুলের চিকিৎসার জন্য দুই-একদিনের মধ্যেই সিঙ্গাপুর যাওয়ার কথা এ উইকেটকিপার ব্যাটসম্যানের। নুরুলের সেরে উঠতে প্রায় তিন সপ্তাহ সময় লাগবে বলে জানানো হয়েছিল। এখন তাঁর অস্ত্রোপচার লাগবে না, এমন আশা করা হচ্ছে।

নুরুলের পর জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডেতে চোটের ধাক্কা আরও বড় করে খায় বাংলাদেশ। ব্যাটিংয়ের সময় হ্যামস্ট্রিংয়ে চোট পান লিটন দাস। সিরিজই শেষ হয়ে গেছে তাঁর, সেরে উঠতে লাগবে তিন-চার সপ্তাহ।  লিটনের সঙ্গে একই ম্যাচে চোট পান মুশফিকুর রহিম ও শরীফুল ইসলামেরও। মুশফিকের চোট হাতে, শরীফুলের পায়ে। অবশ্য দুজনকেই দ্বিতীয় ওয়ানডেতে পাওয়ার আশা করছে বিসিবি। নুরুলের বদলি হিসেবে শুরুতে কাউকে নেওয়া না হলেও লিটনের চোটের পর ডেকে পাঠানো হয়েছে পেসার ইবাদত হোসেন ও ওপেনার মোহাম্মদ নাঈমকে। এদিকে চোটের সমস্যা আছে মোস্তাফিজুর রহমানেরও। জানা গেছে, অ্যাঙ্কেলে চোট আছে এ বাঁহাতি পেসারের।

এদিকে এশিয়া কাপের দল ঘোষণার সঙ্গে টি-টোয়েন্টি অধিনায়কের নামও দেবে বিসিবি। জিম্বাবুয়ে সফরের মাহমুদউল্লাহকে বিশ্রাম দিয়ে দায়িত্ব দেওয়া হয় নুরুলকে। তাঁর অনুপস্থিতিতে শেষ ম্যাচে নেতৃত্ব দেন মোসাদ্দেক হোসেন। মাহমুদউল্লাহ যদিও সে ম্যাচে ছিলেন।

নতুন অধিনায়ক ঘোষণা করার ব্যাপারে গত ৪ আগস্ট বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান বলেন, তাঁদের সম্ভাব্য তালিকায় আছেন চারজন—সাকিব আল হাসান, মাহমুদউল্লাহ, নুরুল হাসান ও লিটন দাস। তবে এঁদের মধ্যে একজন অধিনায়কত্বের প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছেন। অবশ্য সাকিবের ব্যাপারে আরেকটি বিষয়েও ধোঁয়াশা আছে বিসিবির মধ্যে। একটি বেটিং কোম্পানির সহযোগী প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে সাকিবের চুক্তির সত্যতা তদন্ত করে দেখছে বিসিবি।

খেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন