বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
আমাদের প্রস্তাবে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া না করে দিয়েছে। এ ব্যাপারে আর কিছু করার আছে বলে মনে হয় না। একটা নিয়ম যেহেতু আছে, সেটা তো মানতেই হবে।
নিজাম উদ্দিন চৌধুরী, প্রধান নির্বাহী, বিসিবি

মুশফিকের মায়ের অবস্থা এখন মোটামুটি ভালো। বাবার শারীরিক অবস্থাও আগের চেয়ে উন্নতির দিকে। এ অবস্থায় মুশফিক চেয়েছিলেন দলের সঙ্গে জৈব সুরক্ষাবলয়ে ফিরে অস্ট্রেলিয়া সিরিজটা খেলতে। কিন্তু তাঁর খেলা না খেলাটা তখন আর বিসিবির হাতে ছিল না। জৈব সুরক্ষাবলয় থেকে বের হয়ে যাওয়ায় নিয়ম অনুযায়ী মুশফিককে ১০ দিনের কোয়ারেন্টিন করেই দলে ঢুকতে হতো। কিন্তু ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার দেওয়া শর্ত অনুযায়ী কোয়ারেন্টিনে ঢোকার সময় শেষ হয়ে গেছে গতকালই।

এরপরও মুশফিক খেলতে চাওয়ায় এ ব্যাপারে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার মতামত জানতে চেয়েছিল বিসিবি। একটু আগে জানা গেছে, ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া নেতিবাচক মতামতই জানিয়েছে। বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজাম উদ্দিন চৌধুরী ঢাকা থেকে মুঠোফোনে বলেছেন, ‘আমাদের প্রস্তাবে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া না করে দিয়েছে। এ ব্যাপারে আর কিছু করার আছে বলে মনে হয় না। একটা নিয়ম যেহেতু আছে, সেটা তো মানতেই হবে।’

default-image

করোনা পরিস্থিতির কারণে বাংলাদেশ সফরে সতর্ক অস্ট্রেলিয়া দল জৈব সুরক্ষাবলয়ের ব্যাপারে বিসিবিকে বেশ কিছু কঠিন শর্তই দিয়েছে। তার একটি ক্রিকেটারদের এই সিরিজের জৈব সুরক্ষাবলয়ে ঢুকতে হবে ১০ দিনের কোয়ারেন্টিন করে।

তবে জিম্বাবুয়েতে বাংলাদেশ দল যেহেতু জৈব সুরক্ষাবলয়ের মধ্যেই আছে, দলে থাকা ক্রিকেটারদের হারারে থেকে ফিরে কোয়ারেন্টিন করতে হবে না। দেশে ফিরে সরাসরিই তাঁরা আবার জৈব সুরক্ষাবলয়ে ঢুকে যাবেন, বিমানবন্দর থেকে সোজা চলে যাবেন হোটেলে। জরুরি কারণে দেশে ফিরে না গেলে মুশফিকের ক্ষেত্রেও সেটিই হতো।

মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে সিরিজের পাঁচটি ম্যাচ হবে ৩, ৪, ৬, ৭ ও ৯ আগস্ট।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ থেকে ভাড়া করা বিশেষ বিমানে আগামী ২৯ জুলাই অস্ট্রেলিয়া দলের ঢাকায় পৌঁছার কথা। জৈব সুরক্ষাবলয়ে থেকে আসছেন বলে ঢাকায় তিন দিনের কোয়ারেন্টিন করে অনুশীলনে নেমে যাবেন অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটাররাও। মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে সিরিজের পাঁচটি ম্যাচ হবে ৩, ৪, ৬, ৭ ও ৯ আগস্ট। দিবারাত্রির প্রতিটি ম্যাচই শুরু হওয়ার কথা সন্ধ্যা ৬টায়।

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন