ম্যাচটি ছিল ‘ওয়েলবিং অব ওমেন সেলেব্রিটি’ চ্যারিটি ম্যাচ। অস্ট্রেলিয়ার প্রয়াত কিংবদন্তি শেন ওয়ার্নকেও স্মরণ করা হয় এ ম্যাচে। ম্যানচেস্টারে আয়োজিত এ ম্যাচে ওয়াসিম আকরাম, মাইক আথারটন ছাড়াও ছিলেন ব্রায়ান লারা, ইয়ান বেল, মন্টি পানেসার, নিল জনসন, শার্লট এডওয়ার্ডস, মার্ক নিকোলাস ও রাজস্থান রয়্যালসের অন্যতম স্বত্বাধিকারী মনোজ বাদালে। আম্পায়ারের ভূমিকায় ছিলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজকে দুটি বিশ্বকাপ জেতানো কিংবদন্তি অধিনায়ক ক্লাইভ লয়েড।

default-image

ওয়াসিম আকরামের বলে ক্যারিয়ারে মোট ছয়বার আউট হয়েছেন মাইক আথারটন। এর মধ্যে টেস্টে চারবার, ওয়ানডেতে দুবার। টেস্টে বোল্ড হয়েছেন একবার, ওয়ানডেতে একবার। ১৯৯২ সালে ওল্ড ট্রাফোর্ড টেস্টে তিনি প্রথম আকরামের বলে আউট হন। যদিও সেটি ছিল কট বিহাইন্ড। উইকেটের পেছনে তাঁর ক্যাচ নিয়েছিলেন মঈন খান। প্রথম বোল্ড হন ৯২ সালেই হেডিংলি টেস্টে। এলবিডব্লু হয়েছেন ১৯৯৬ সালে লর্ডস টেস্টে। ওই একই সিরিজে হেডিংলিতে তিনি মঈন খানের হাতে ক্যাচ হয়েছিলেন আকরামের বলে। ওয়ানডেতে ওল্ড ট্রাফোর্ডে বোল্ড হয়েছিলেন ১৯৯৬ সালে। সেই সিরিজেই শহীদ নাজিরের হাতে ক্যাচ দিয়ে আকরামের বলে আরেকবার আউট হয়েছিলেন আথারটন।

কাল চ্যারিটি ম্যাচে আথারটনকে বোল্ড করে নিজের টুইটারে মজা করেছেন ওয়াসিম আকরাম নিজেই, ‘দুঃখিত আথারটন! আমাদের হয়তো বয়স হয়ে গেছে। কিন্তু কিছু জিনিস আমাদের মধ্যে এখনো রয়ে গেছে।’

ক্রিকেট থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন